ফলাফল পেয়ে উচ্ছ্বসিত শিক্ষার্থীরা

ল মাঠে উদ্বেগ আর উৎকণ্ঠায় অপেক্ষা করছেন শিক্ষার্থীরা।
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক: দুপুর ১টা ৩০ মিনিট। আনুষ্ঠানিকভাবে ফলাফল ঘোষণা হয়নি তখনও।

স্কুল মাঠে উদ্বেগ আর উৎকণ্ঠায় অপেক্ষা করছেন শিক্ষার্থীরা। অনেকে অনলাইনে ফল পেয়ে ছুটে এসেছেন প্রিয় আঙ্গিনায়।  স্কুলে আসতেই খুশিতে একে অন্যকে জড়িয়ে ধরে নাচতে শুরু করেন তারা।

২০২২ সালের মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমানের পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশিত হয় সোমবার (২৮ নভেম্বর)। ভালো ফলে উচ্ছ্বসিত শিক্ষার্থীরা। প্রতিবেশীদের মাঝে মিষ্টি বিতরণ করেন অভিভাবকরা।

ডা. খাস্তগীর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক মুহাম্মদ আফছার উদ্দিন রাজু গণমাধ্যমকে বলেন, এবার তারা সব বিষয়ে পরীক্ষা দিয়েছে। আমাদের শিক্ষার্থীরা কঠোর পরিশ্রম করেছে তাই আজ তারা সফল। ভালো ফলাফলে ছুটে এসেছে তাদের প্রিয় আঙ্গিনায়।

ডা. খাস্তগীর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে গোল্ডেন জিপিএ পাওয়া শিক্ষার্থী তাজনুভা আরিয়ান গণমাধ্যমকে বলেন, অনেক বেশি খুশি। জীবনের একটি কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে নিজেকে নিয়ে যেতে পেরেছি বলে মনে হচ্ছে। আমার মা-বাবা ও শিক্ষকরা আমার জন্য যে পরিশ্রম করেছেন তা সফল হয়েছে। আমি কৃতজ্ঞ শিক্ষকদের প্রতি। শিক্ষকরা সর্বোচ্চ চেষ্টা করেছেন। আমরাও চেষ্টা করেছি। সবকিছুই শিক্ষকদের জন্য। সঙ্গে ছিল অভিভাবকদের সহযোগিতা।

অভিভাবক তৈয়বা খাতুন ঘণমাধ্যমকে বলেন, আমার মেয়ে গোল্ডেন জিপিএ পেয়েছে। আমাদের কষ্ট সফল হয়েছে। আমরা চাই, মেয়ের এ সাফল্য দীর্ঘস্থায়ী হোক।

কলেজিয়েট স্কুলের প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম গণমাধ্যমকে বলেন, ২০২২ সালের এসএসসি পরীক্ষায় আমাদের ৪৯৩ জন শিক্ষার্থী অংশ নেয়। এরমধ্যে ৪৮৩ জন জিপিএ ৫ পেয়েছে। শিক্ষকদের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় এ ফলাফল।

চট্টগ্রাম কলেজিয়েট স্কুলের শিক্ষার্থী আদিব রহমান গণমাধ্যমকে বলেন, শিক্ষকরা পড়ালেখার বিষয়ে অনেক বেশি আন্তরিক। পড়ালেখা সংক্রান্ত সব বিষয়ে শিক্ষকরা অনেক বেশি যত্নবান। যার কারণে আজ আমরা সফল।

চট্টগ্রাম মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডে এসএসসিতে পাসের হার ৮৭.৫৩ শতাংশ। যা গত বছরের তুলনায় ৩.৫৯ শতাংশ কমেছে। বেড়েছে জিপিএ ৫ এর সংখ্যা। এবার জিপিএ ৫ পেয়েছে ১৮ হাজার ৬৬৪ জন।