ফটিকছড়িতে ওএমএস চাউলের চাহিদা বেড়ছে

সপ্তাহে ৫ দিন নভেম্বর মাস পর্যন্ত ও.এম.এস এর চাউল বিতরণ করা হবে জানিয়েছেন উপজেলা খাদ্য কর্মকর্তা শ্যাম প্রসাদ চাকমা
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

ফটিকছড়ি প্রতিনিধি: ফটিকছড়িতে ওএমএস’র বিতরণ গত  ১সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হয়েছে। ফটিকছড়ি,নাজিরহাট পৌরসভায় ৬ ডিলারের মাধ্যমে এ চাউল বিতরণ কার্যক্রম চলছে।

সপ্তাহে ৫ দিন নভেম্বর মাস পর্যন্ত ও.এম.এস এর চাউল বিতরণ করা হবে জানিয়েছেন উপজেলা খাদ্য কর্মকর্তা শ্যাম প্রসাদ চাকমা।

ফটিকছড়ি পৌরসভায় ৩ জন, নাজিরহাট পৌরসভায় ৩ জন, মোট ৬ জন ডিলার দৈনিক ২ টন করে চাউল বিতরণ করছেন।

ফটিকছড়ি-নাজিরহাট পৌরসভায় কয়েকজন  ডিলারের সাথে কথা হলে তারা জানান ওএমএস এর চাউলের চাহিদা বেশি। প্রতিদিন সরকারের বরাদ্দ ২ টন ৪ শত জন, এর বাইরে দিতে পারতেছি না। চাহিদা বেশি থাকায় কিছু লোক ফেরত যাচ্ছে।

চাউল নিতে আসা কয়েকজনের সাথে কথা হলে তারা বলেন, প্রতিদিনই ৩০ টাকা করে নাজিরহাট,বিবিরহাট চাউল নিচ্ছি। চাউলের মান  অত্যন্ত ভালো। আমরা মধ্যবিত্ত পরিবারের মানুষ, বাজারে সবকিছুর দাম বেশি। সরকার যাতে চাউল বিতরণ যেন অব্যাহত রাখেন তাই সরকারের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করি।

নাজিরহাটের ওএমএস ডিলার শাহজালাল সাথে কথা হলে তিনি বলেন আগের তুলনায় ওএমএস চাউলের চাহিদা বেড়ে গেছে। সরকারের বরাদ্দ প্রতিদিন ২ টন, চার শত জনের জন্য। আমরা বরাদ্দার বাইরে দিতে পারছি না। চাহিদার বিষয়টি আমরা প্রশাসনকে জানাবো।

ফটিকছড়ি উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রন কর্তৃক (খাদ্য) কর্মকর্তা শ্যাম  প্রসাদ চাকমা বলেন, সরকারি বরাদ্দ এর বাইরে ডিলার দিতে পারবেনা। চাউলের চাহিদা বেড়েছে এখন জেনেছি, প্রশাসনের ঊর্ধতম কর্মকর্তাকে সে বিষয়েই জানানো হবে।