প্রবাসী শ্রমিকের পক্ষে সৌদিতে নজিরবিহিন রায় কোম্পানিকে জরিমানা

সৌদি আরবের দক্ষিনাঞ্চলে আদালতের এক রায়ে কোম্পানির পক্ষ থেকে প্রবাসী শ্রমিককে কে ১ লাখ ৮০ হাজার রিয়াল জরিমানা প্রদান করার জন্য নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

সৌদি আরব প্রতিনিধি: সৌদি আরবের দক্ষিনাঞ্চলে আদালতের এক রায়ে কোম্পানির পক্ষ থেকে প্রবাসী শ্রমিককে কে ১ লাখ ৮০ হাজার রিয়াল জরিমানা প্রদান করার জন্য নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। আইন অমান্য করে উক্ত প্রবাসী কর্মীকে ছাটাই করার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় আইন অমান্যকারী কোম্পানিকে এই বিশাল অংকের জরিমানা প্রদান করার জন্য রায় দিয়েছে আদালত।

জানা যায়, উক্ত প্রবাসী শ্রমিক ইতিপূর্বেই সৌদি আরবের আদালতে দায়ের করা মামলা হেরে গিয়েছিলেন। মামলা হেরে গিয়ে তিনি আপিল বিভাগে আপিল করেন, এবং আপিল সংক্রান্ত আদালত তার অভিযোগের ভিত্তিতে সঠিক তথ্য ও প্রমাণ যাচাই করার পরে অভিযুক্ত কোম্পানিকে দোষী সাব্যস্ত করে এবং কোম্পানিকে নির্দেশনা প্রদান করে উক্ত প্রবাসী শ্রমিককে ১ লাখ ৮০ হাজার রিয়াল জরিমানা হিসেবে প্রদান করার জন্য।

জানা যায়, কাজের চুক্তির মেয়াদ শেষ হবার ৮ মাস পূর্বেই চাকুরী থেকে ছাটাই করা হয় উক্ত প্রবাসী শ্রমিককে। এবং, তাকে চাকুরী থেকে ছাটাই পরবর্তী সুবিধা, প্রণোদনা, এবং বকেয়া থাকা বেতন দেয়া থেকে বিরত থাকার জন্য কোম্পানি তাকে “পালিয়ে যাওয়া শ্রমিক”হিসেবে রিপোর্ট করে।

এ সকল কারণে উক্ত শ্রমিক যেমন চাকুরী থেকে ছাঁটাই হন, তার পাশাপাশি তিনি তার বকেয়া বেতন থেকে বঞ্চিত হন, শ্রম আইন অনুযায়ী কোম্পানি থেকে চাকুরী ছাঁটাই সাপেক্ষে প্রাপ্য প্রণোদনা থেকে বঞ্চিত হন, এবং, তাকে “পালিয়ে যাওয়া কর্মী” হিসেবে রিপোর্ট করার কারনে তিনি অন্য কোন স্থানে কাজে যোগদান এর সুযোগ থেকে বঞ্চিত হন। প্রায় ২২ মাস তিনি নিজের স্পন্সরশীপ ট্রান্সফার করতে পারেননি এবং ইকামা রিনিউ করতে পারেননি।

নিজের বকেয়া বেতন, চাকুরী থেকে ছাটাই পরবর্তী প্রণোদনা, এবং ক্ষতিপূরণ পাবার জন্য উক্ত কোম্পানির বিরুদ্ধে মামলা করেন ক্ষতিগ্রস্ত শ্রমিক। তবে, আদালতের প্রাথমিক রায়ে অভিযোগটি খারিজ করে দেয়া হয়।

পরবর্তীতে তিনি আদালতের আপিল বিভাগে অভিযোগটি পুনরায় যাচাই এর জন্য আপিল করেন। তদন্ত শেষে এবং সকল তথ্য-প্রমাণ যাচাই এর পর আদালত এই সিদ্ধান্তে উপনীত হয়, যে কোম্পানিটি সৌদি আরবের শ্রম আইন ভঙ্গ করেছে। এছাড়াও কোম্পানিটি শ্রম অফিসে মিথ্যা রিপোর্ট জমা দিয়েছে, যেখানে এ প্রবাসী শ্রমিককে কাজে অনুপস্থিত হিসেবে প্রদর্শন করা হয়েছে।

শ্রম আইন ভঙ্গ করার অপরাধে এবং প্রবাসী কর্মীকে মিথ্যা রিপোর্ট করে হয়রানি করার অপরাধে অভিযুক্ত কোম্পানিকে জরিমানা করেছে আদালতের আপিল বিভাগ। উক্ত প্রবাসী কর্মীর বকেয়া বেতন, চাকুরী থেকে ছাটাই পরবর্তী প্রণোদনা, এবং পরবর্তীকালীন সময়ে তার বিরুদ্ধে মিথ্যা রিপোর্ট, তাকে অন্যত্র চাকুরী গ্রহণের ক্ষেত্র প্রতিহত করা, এবং তাকে অর্থনৈতিক এবং মানসিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করায় উক্ত প্রবাসী শ্রমিককে ১ লাখ ৮০ হাজার রিয়াল জরিমানা প্রদান করার রায় দিয়েছে আদালত। এর পাশাপাশি অভিযোগকারী প্রবাসী শ্রমিকের উকিলের ফি ও প্রদান করতে হবে অভিযুক্ত কোম্পানিকে।

সৌদি আরবে অনেক প্রবাসী কর্মীই রয়েছেন যারা বিভিন্ন সময়ে কোম্পানির দ্বারা ক্ষতিগ্রস্ত হন, কিন্তু ক্ষতিপূরণ আদায় করার প্রক্রিয়া সম্পর্কে অবগত না থাকায় যথাযথ কর্তৃপক্ষের কাছে অভিযোগ দায়ের করা থেকে বিরত থাকেন। তাদের জন্য একটি মাইলফলক হয়ে উঠেছে এই নজিরবিহীন রায়।