পাহাড়ে চলছে ১৪৪ ধারা জারির মহোৎসব

রাজনৈতিক সহিংসতা এড়াতে পাহাড়ে ১৪৪ ধারা জারির মহোৎসব
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

আলমগীর মানিক, রাঙামাটি প্রতিনিধি: দুইটি প্রধান রাজনৈতিকদলের পাল্টাপাল্টি কর্মসূচী একই সময়ে একই স্থানে পালনের ঘোষণাকে কেন্দ্র পাহাড়ী জেলা রাঙামাটিতে ১৪৪ ধারা জারির হিড়িক পড়েছে।

চলতি সপ্তাহের গত ২৮ তারিখ হতে রাঙামাটির কাপ্তাই, ২৯ তারিখে লংগদু, ৩০ তারিখে রাঙামাটি সদরের ভেদভেদী’র পর এবার নতুন করে জেলার জুরাছড়ি উপজেলা সদরে ১৪৪ ধারা জারির ঘোষণাদেশ দিয়েছেন স্থানীয় প্রশাসন তথা উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিষ্ট্রেট জীতেন্দ্র কুমার নাথ।

মঙ্গলবার (৩০ আগস্ট) বিকেল চারটার সময় এই ঘোষনাদেশ পত্র জারি করা হয়েছে।

জুরাছড়ির উপজেলার ইউএনও জীতেন্দ্র কুমার নাথ ১৪৪ ধারা জারির বিষয়টি প্রতিবেদকের কাছে নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, জনজীবনের অসুবিধা ও স্বাভাবিক শান্তি শৃঙ্খলা বিঘ্নিত হওয়ার আশংকা এবং শান্তিপূর্ণ পরিবেশ অক্ষুন্ন রাখার স্বার্থে ফৌজদারী কার্যবিধি ১৮৯৮ এর ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। এই আদেশের ফলে ৩১শে আগষ্ট বুধবার সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত জুরাছড়ি উপজেলা সদরে সকল প্রকার রাজনৈতিক কর্মসূচী নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

১৪৪ ধারা জারির আদেশপত্রে ইউএনও উল্লেখ করেছেন, যেহেতু আগামী ৩১/০৮/২০২২ খ্রিঃ তারিখে জুরাছড়ি উপজেলার যক্ষাবাজার স্থানে কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসেবে জুরাছড়ি উপজেলার বিএনপি উদ্যোগে সমাবেশ করার প্রস্তুতি গ্রহণ করেছেন এবং অন্যদিকে উপজেলা আওয়ামী যুবলীগ ও ছাত্রলীগ এর উদ্যোগে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার প্রতিবাদ ও গ্রেনেড হামলার অন্যতম পরিকল্পনাকারী খুনি তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে এনে দ্রুত ফাঁসির রায় কার্যকর করার দাবীতে একই স্থানসহ হাসপাতাল এলাকা পর্যন্ত বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভা করবেন মর্মে সংবাদ পাওয়া গেছে।

যেহেতু আমার নিকট এ মর্মে অনুমিত হচ্ছে যে, আগামী ৩১/০৮/২০২২ খ্রিঃ তারিখে জুরাছড়ি উপজেলার জুরাছড়ি ইউনিয়নের একই স্থানে একই তারিখে ও সময়ে বাংলাদেশের দুইটি বৃহত্তর রাজনৈতিক দলের আহুত কর্মসূচীর কারণে জনজীবনের অসুবিধা ও উপজেলার স্বাভাবিক শান্তি শৃঙ্খলা বিঘ্নিত হওয়ার আশংকা রয়েছে এবং জনস্বার্থে জুরাছড়ি উপজেলায় শান্তিপূর্ণ পরিবেশ অক্ষুন্ন রাখা অপরিহার্য।

সেহেতু আমি জীতেন্দ্র কুমার নাথ, উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট, জুরাছড়ি, রাঙামাটি পার্বত্য জেলা আমার উপর অর্পিত ক্ষমতাবলে আগামী ৩১/০৮/২০২২ খ্রিঃ তারিখ সকাল ৬.০০ ঘটিকা হতে সন্ধ্যা ৬.০০ ঘটিকা পর্যন্ত জুরাছড়ি উপজেলার যক্ষাবাজার হতে হাসপাতাল এলাকা ও সংলগ্ন এলাকায় সকল প্রকার সভা সমাবেশ, মিটিং মিছিল, লোক সমাগম এবং চার বা ততোধিক ব্যক্তির একত্রে চলাচল ও আইন শৃঙ্খলা পরিপন্থী সকল অবৈধ কার্যক্রম নিষিদ্ধ ঘোষণা করে অত্র উল্লিখিত স্থানে ১৮৯৮ সালের ফৌজদারী কার্যবিধির ১৪৪ ধারা জারী করলাম। এ আদেশ সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারি, জরুরী সেবা, স্বাভাবিক কাজে নিয়োজিত এবং আইন শৃঙ্খলা রক্ষার কাজে নিয়োজিত ব্যক্তিবর্গের জন্য প্রযোজ্য হবে না।

এদিকে এনিয়ে চলতি সপ্তাহে রাঙামাটি জেলার কাপ্তাই উপজেলা, সদর উপজেলা, লংগদু উপজেলার পর এবার সর্বশেষ ৩১ তারিখে জুরাছড়ি উপজেলা সদরে ১৪৪ ধারা জারির ঘোষণা দিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন। স্ব-স্ব উপজেলায় এই ১৪৪ ধারা জারির ঘোষণাদেশে স্বাক্ষর করেছেন উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তাগণ।

এসব নিষেধাজ্ঞার ফলে সংশ্লিষ্ট এলাকাগুলোতে রাজনৈতিক দলগুলোর নেতাকর্মীরা তাদের পূর্ব নির্ধারিত কর্মসূচী পালন থেকে বিরত ছিলো বিধায় কোনো ধরনের সহিংসতার খবর পাওয়া যায়নি এলাকাগুলোতে জনজীবন স্বাভাবিক রয়েছে।