পাকিস্তানে বন্যাদুর্গত এলাকা পরিদর্শনে জাতিসংঘ প্রধান

ছবি; সংগৃহীত
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

সিপ্লাস ডেস্ক: বন্যায় বিধ্বস্ত পাকিস্তানের সিন্ধু ও বেলুচিস্তান প্রদেশ পরিদর্শন করেছেন জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্তনিও গুতেরেস। বন্যাকবলিত দেশটিকে ত্রাণ সরবরাহ করার কথা বলার একদিন পর তিনি এলাকা পরিদর্শনে গেলেন।

দুই দিনের সফরে পাকিস্তানে গেছেন জাতিসংঘ প্রধান। ভারি বৃষ্টিপাতের কারণে সৃষ্ট বন্যায় বিধ্বস্ত পাকিস্তানের বেশ কয়েকটি প্রদেশ। বন্যার কারণে এ পর্যন্ত ১৩৯৬ জন মারা গেছে বলে জানা গেছে। বন্যাজনিত কারণে আহত হয়েছেন ১২ হাজার ৭২৮ জন। ঘরছাড়া হয়েছেন লাখ লাখ মানুষ। বন্যার পানিতে ডুবে গেছে ঘরবাড়ি, রাস্তাঘাট ও বিভিন্ন স্থাপনা। ভেঙে পড়েছে যোগাযোগ ব্যবস্থাও।

অ্যান্তনিও গুতেরেস দক্ষিণ সিন্ধু প্রদেশের সুক্কুর জেলার বন্যাকবলিত এলাকা ও দক্ষিণ-পশ্চিম বেলুচিস্তান প্রদেশের ওস্তা মোহাম্মদ এলাকা পরিদর্শন করেন। এসব এলাকা সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে এবারের বন্যায়।

এই সংকট মোকাবিলা করতে পাকিস্তানের বড় ধরনের আর্থিক সহায়তা প্রয়োজন বলে জানান তিনি। তিনি আরও বলেন, এটি উদারতার নয়, ন্যায়বিচারের বিষয়। সিন্ধু প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী মুরাদ আলি শাহ তার প্রদেশে বন্যার কারণে চলা ধ্বংসযজ্ঞ সম্পর্কে অবহিত করার পর গুতেরেস এমন মন্তব্য করেন। প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ ও তার মন্ত্রিসভার কয়েকজন সদস্য এসময় তার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন।

২০১০ সালে এমন বন্যা পরিস্থিতি দেখেছিল পাকিস্তানের মানুষ। মানবিক সংকট প্রকট আকার ধারণ করেছে দেশটিতে। বন্যায় ক্ষয়ক্ষতি তিন হাজার কোটি মার্কিন ডলার ছাড়িয়েছে। দেশটির অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি প্রত্যাশার তুলনায় অর্ধেক কমে যাবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

চলতি বছর এর আগে জুনের মাঝামাঝি সময়ে শুরু হওয়া ভারি বর্ষণে ক্ষতিগ্রস্ত হয় দেশটি। জলবায়ু বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বৈশ্বিক উষ্ণতা বৃদ্ধির জন্য এমন প্রাকৃতিক দুর্যোগের ঘটনা ঘটছে।