পতেঙ্গা সমূদ্র সৈকতে চোখের জলে দুর্গা মাকে বিদায়

CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

দেবী দুর্গার  প্রতিমা নিরঞ্জন উপলক্ষে নগরীর পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকত জনসমুদ্রে পরিণত হয়।

দুুপুর একটার পর থেকে নানা বয়সী মানুষের আগমনে ভরে উঠে পতেঙ্গা সৈকত। ভক্তদের কারও চোখে জল, কেউ শেষবারের মতো প্রণাম করছেন। আবার কেউ দুর্গামায়ের চরণে, হাতে গুঁজে দিচ্ছেন চিরকুট।

মঙ্গলবার (৮ অক্টোবর)  ট্রাক, পিকআপ, ঠেলাগাড়ি ও  রিকশাভ্যান করে নগরীর বিভিন্ন স্থান থেকে প্রতিমার মিছিল আসতে থাকে পতেঙ্গা সমূদ্র সৈকতে।

সকাল থেকে নগরীর মণ্ডপে মণ্ডপে বাজে বিদায়ী সুর। ষোড়শ উপাচারে দশমীর বিহিত পূজা, দর্পন বিসর্জন, শাস্ত্রীয় আচার, দেবীর চরণে অঞ্জলি নিবেদন, দেশ-জাতি, ব্যক্তিগত ও পরিবারের সুখ, শান্তি, মঙ্গল কামনায় ব্যস্ত ছিলেন পূজার্থীরা।

মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি অ্যাডভোকেট চন্দন তালুকদার বলেন, ‘এবার নগরে ২৭০টি মণ্ডপে পূজা হয়েছে। এর মধ্যে পতেঙ্গা সৈকতে ১২০-১৩০টি প্রতিমা বিসর্জন হবে। এর বাইরে ফিরিঙ্গিবাজারের অভয়মিত্র ঘাটে, কাট্টলী সৈকতে, পাহাড়তলীর বিভিন্ন পুকুর-দীঘিতে, কালুরঘাটে কর্ণফুলী নদীতে প্রতিমা বিসর্জন হবে। রাতেও প্রতিমা বিসর্জনের সুবিধার্থে আলোকায়নসহ পর্যাপ্ত ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।’

পতেঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) উৎপল বড়ুয়া জানান, প্রতিমা নিরঞ্জন নির্বিঘ্ন করতে একটি অস্থায়ী পুলিশ কন্ট্রোল রুম চালু করা হয়েছে সৈকতে। তিন স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হয়েছে। র‌্যাবের টহল, নিয়মিত পুলিশ, নারী পুলিশ সদস্য, টুরিস্ট পুলিশসহ সাদা পোশাকে পর্যাপ্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। রয়েছে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের টিমসহ ডুবুরিরাও।