‘নিরাপত্তা না থাকলে খেলোয়াড়দের পাকিস্তানে পাঠানো হবে না’

CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

বিসিবির পক্ষ থেকে ক্রিকেটারদের পাকিস্তানের পাঠাতে চাইলেই হবে না। তার জন্য মন্ত্রণালয়ের সম্মতি লাগবে। পরিষ্কার জানিয়ে দিলেন, যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল। পাকিস্তানের নিরাপত্তা পরিস্থিতি নিয়ে মন্ত্রণালয় অসন্তুষ্ট থাকলে, কারো ইচ্ছাতেই ক্রিকেটারদের পাকিস্তানে পাঠানো হবে না। যদি, আইসিসি থেকে কোনো নির্দেশনা আসে সে ক্ষেত্রেও বাংলাদেশ সরকার, ক্রিকেট বোর্ড এবং ক্রিকেটারদের পাশে থাকবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

আইসিসির এফটিপি অনুযায়ী জানুয়ারিতে পাকিস্তান সফরে যাওয়ার কথা বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের। সেখানে টি-টোয়েন্টির পর, আছে দুটি টেস্ট ম্যাচও। যা আবার ক্রিকেটের নব সংস্করণ টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অংশ।

তবে, পাকিস্তানের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে এখনো সন্দিহান বাংলাদেশ। তাই তো, আপাতত টি-টোয়েন্টি খেলতে রাজি হয়েছে ক্রিকেট বোর্ড। আর টেস্টের জন্য চেয়েছে নিরপেক্ষ ভেন্যু। তবে, বাংলাদেশের এ প্রস্তাব উড়িয়ে দিয়ে পাকিস্তানে আসার আহ্বান জানিয়েছে পিসিবি।

এহেন দেন দরবারের মাঝে, কিছুটা ইতস্ততায় ভুগছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। পাকিস্তান সফরের জন্য নিম রাজি দেখা গেছে অনেককেই। তবে, বিসিবি সম্মতি দিলেই যে ক্রিকেটারদের পাকিস্তান সফর হবে, এ ধারণাকে উড়িয়ে দিলেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী।

যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল বলেন, ইতিমধ্যে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর মাধ্যমে একটা পর্যালোচনা হচ্ছে। যেহেতু নিউজিল্যান্ড সফরে একটা দুঃখজনক পরিস্থিতির প্রায়ই সম্মুখীন হতে গিয়েছিল তাই পরিবারের মধ্যে একটা ভয় দেখা দিয়েছে।  তাই আমি মনে করি আমাদের খেলোয়াড়দের নিরাপত্তা না দিলে কাউকে পাঠাবো না।

পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের চেয়ারম্যান এহসান মানি, সিরিজ না হলে, আইসিসির দারস্থ হবেন বলে প্রচ্ছন্ন হুমকি দিয়ে রেখেছেন বাংলাদেশকে। তবে, বিষয়টি নিয়ে ভ্রুক্ষেপ না করে, যে কোন পরিস্থিতিতে সরকার বিসিবির পাশে থাকবে বলেও আশ্বস্ত করেছেন প্রতিমন্ত্রী।

তিনি আরো বলেন, আমাদের খেলোয়াড়দের নিরাপত্তার বিষয়ে ছাড় দিতে চাচ্ছি না।তার জন্য যা দরকার আমরা করবো।

২০০৯ সালের সন্ত্রাসী হামলার ১০ বছর পর সম্প্রতি আবারো পাকিস্তান সফর করেছে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দল।