নগরের যানজট কমাতে আরও এক ফ্লাইওভার

সেখান থেকে একটি ফ্লাইওভার নির্মাণ করে নদীর পাড় দিয়ে বারেক বিল্ডিং মোড়ে এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের সাথে যুক্ত করা হবে
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক: শহরের যানজট কমাতে এবং মেরিন ড্রাইভের বিকল্প হিসেবে আরও একটি ফ্লাইওভার নির্মাণের উদ্যোগ নিয়েছে চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (সিডিএ)।

শাহ-আমানত সেতু থেকে বারিক বিল্ডিং পর্যন্ত ২ দশমিক ৭ কিলোমিটার দীর্ঘ ফ্লাইওভারটি নির্মাণ হলে পতেঙ্গা ও বিমানবন্দরগামী যাত্রীরা সুফল পাবেন- মত সংশ্লিষ্টদের।

জানা গেছে, কালুরঘাট থেকে নদীর পাড় দিয়ে শাহ আমানত ব্রিজ পর্যন্ত বাঁধ ও রাস্তা নির্মাণের কাজ করছে সিডিএ। যা যুক্ত হচ্ছে শাহ আমানত সেতুর কাছে এসে। অপরদিকে শাহ আমানত সেতু থেকে মেরিন ড্রাইভ হয়ে ফিরিঙ্গি বাজারের ভিতর দিয়ে একটি রাস্তা সদরঘাট বারেক বিল্ডিং মোড়ে এসে শেখ মুজিব রোডের সাথে যুক্ত হয়েছে। কিন্তু ঘনবসতির কারণে শহরের ভিতর দিয়ে আসা রাস্তাটিতে যানজট থাকায় আউটার রিং রোডের অংশ হিসেবে ব্যবহার করা যাচ্ছে না।

মাস্টার প্ল্যান অনুযায়ী, শহরে যান চলাচলে প্রত্যাশিত গতি আনতে আউটার রিং রোড চক্রাকারে বাস্তবায়ন করার পরিকল্পনা ছিল সিডিএ’র। এই পরিকল্পনার অংশ হিসেবে শাহ আমানত সেতু থেকে মেরিন ড্রাইভ রোড যে পয়েন্টে ফিরিঙ্গি বাজারের দিকে প্রবেশ করেছে, সেখান থেকে একটি ফ্লাইওভার নির্মাণ করে নদীর পাড় দিয়ে বারেক বিল্ডিং মোড়ে এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের সাথে যুক্ত করা হবে। ফিরিঙ্গিবাজার থেকে বারিক বিল্ডিং মোড় পর্যন্ত নদীর পাড় দিয়ে সরকারি-বেসরকারি যেসব জেটি রয়েছে সেগুলো নিচে রেখে ওপর দিয়ে নেওয়া হবে ফ্লাইওভার।

সিডিএর প্রধান প্রকৌশলী কাজী হাসান বিন শামস গণমাধ্যমকে বলেন, নতুন একটি ফ্লাইওভার নির্মাণের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। শহরের যানজট কমাতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে এ ফ্লাইওভার নির্মাণ করা হবে। সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন সংস্থার সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে আলোচনার মাধ্যমে ডিপিপি তৈরি করে মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে। এই ফ্লাইওভারটি নির্মাণ করা হলে নগরীর আউটার রিং রোডের ব্যাপারটি পুরোপুরি নিশ্চিত করা সম্ভব হবে। এতে শহরের যান চলাচলে প্রত্যাশিত গতি আসবে।