দেশের মোট রেভিনিউ’র সিংহভাগ আসে চট্টগ্রাম থেকে: বাণিজ্যমন্ত্রী

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক: চট্টগ্রামের মানুষকে সওদাগর উল্লেখ করে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেন, চট্টগ্রামের মানুষদের বলা হয়, ব্যবসায়ী মানুষ। ব্যবসায়ী মানসিকতার মানুষ। আগেকার দিনের সওদাগর তারা। এখনও আমাদের দেশে যে রেভিনিউ আসে তার সিংহভাগ আসে চট্টগ্রাম দিয়ে।

সোমবার (১০ অক্টোবর) বেলা সাড়ে ১১টায় চট্টগ্রাম মহানগরীর কাজির দেউড়ি আউটার স্টেডিয়ামে আন্তর্জাতিক বাণিজ্য ও রপ্তানি মেলার উদ্বোধনকালে এসব কথা বলেন তিনি। চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (মেট্রোপলিটন চেম্বার) মাসব্যাপী এ মেলার আয়োজন করে।

টিপু মুনশি বলেন, সারাদেশে এক নিয়ম, আর ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে আরেক নিয়ম তা গ্রহণযোগ্য নয়। সারাদেশের কোথাও লোড এক্সেল নেই, কিন্তু ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে লোড এক্সেল বসানো হয়েছে। এটা ঠিক নয়। পণ্য পরিবহনে যদি এভাবে বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়, তাহলে পণ্যের ব্যয়ে প্রভাব ফেলবে। জিনিসপত্রের দাম বাড়বে। যা সাধারণ মানুষের জন্যে হবে কষ্টকর। আমি আবারো সড়ক মন্ত্রীকে কথাটা বলবো। এই সিস্টেমটা পরিবর্তন করতে। সারাদেশে যেভাবে আছে, সেভাবেই ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে করা হউক।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, আন্তর্জাতিক বাজারে বাংলাদেশি পণ্যের রপ্তানির সুযোগ হয়েছে এবং তা ধীরে ধীরে বাড়ছে। আমাদের একমাত্র পোশাকশিল্প ৮৩-৮৪ শতাংশ। আমরা চাইছি অন্যান্য অফিসিয়াল আইটেমগুলোর রপ্তানি বাড়াতে। প্রত্যেকটি পণ্যের রপ্তানি অন্তত বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়ে যাক। তবে সুখের বিষয় যে, গত দুই বছরে আমাদের চার-পাঁচটা আইটেম বিলিয়ন ডলার স্পর্শ করেছে। আগামী কয়েক বছরের মধ্যে চামড়াজাত পণ্য, পাটজাত পণ্য, লাইট, মেশিনারিজ, আইটি প্রোডাক্ট, আইসিটি সেক্টরের পণ্য, ফার্মাসিউটিক্যাল প্রোডাক্ট আন্তর্জাতিক বাজারে বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, বর্তমানে ১৫১টা দেশে আমাদের ওষুধ রপ্তানি হয়। আমাদের সিরামিক প্রোডাক্ট আন্তর্জাতিক বাজারে খুবই জনপ্রিয়। পশ্চিমা দেশগুলোর ফাইভস্টার হোটেলেও বাংলাদেশি সিরামিক পণ্য দেখতে পেয়েছি।

সামনের দিনগুলো সম্ভাবনার জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, আমি একজন ব্যবসায়ী এবং রাজনীতিবিদ। আমার রাজনীতি করার বয়স ৫৫ বছর হয়ে গেলো। আমি এক সময় বিজিএমইএ’র প্রেসিডেন্ট ছিলাম। ব্যবসায়ী ও রাজনীতির মধ্যে আমি মিশে আছি। বিশ্বাস করি এবং প্রচলনও আছে- ‘বাণিজ্যে বসতি লক্ষী।’ আমাদের ভাগ্যটা আমাদের পরিবর্তন করতে হবে।

এদিকে বাজারে ৫ লিটার তেলের দাম হাজার টাকার ওপরে, এর মধ্যে আবার প্রতি বোতলে তেল তিনশ গ্রাম করে কম থাকার বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেন, বিষয়টি ভোক্তা অধিকার দেখবে। আমি বিষয়টি নিয়ে নির্দেশনা দেবো।