টেক্সাসের স্কুলে বন্দুকধারীর গুলিতে ১৯ শিশু এবং ২ শিক্ষক নিহত

ছবি: সংগৃহীত
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

সিপ্লাস ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাস অঙ্গরাজ্যের একটি স্কুলে বন্দুকধারীর গুলিতে ১৯ শিশুসহ ২১ জন নিহত হয়েছে। খবর বিবিসির।

মঙ্গলবার (২৪ মে) উভালদে এলাকার রব এলিমেন্টারি স্কুলে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত বাকি দু’জন প্রাপ্তবয়স্কের মধ্যে একজন ওই শিশুদের শিক্ষক বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে। তার নাম ইভা মিরেলেস। দ্য ওয়াশিংটন পোস্টের সংবাদে অবশ্য নিহত দুইজনের পরিচয়ই শিক্ষক বলা হয়েছে।

এ ঘটনায় সন্দেহভাজন ব্যক্তি পুলিশের পাল্টা গুলিতে নিহত হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। ১৮ বছর বয়সী, হামলাকারী সালভাদর রামোসের হাতে একটি বন্দুক ও এআর-১৫ রাইফেল ছিল বলে আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী নিশ্চিত করেছে।

গোলাগুলির শুরুতে কিশোরটি তার দাদীকে গুলি করে বলে সন্দেহ করা হচ্ছে।

স্থানীয় গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সে নিজেও ঐ এলাকারই উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী হতে পারে।

তবে সে কেন এই ঘটনা ঘটিয়েছে তা এখনো পরিষ্কার নয়।

নিহত শিশুদের বয়স ছিল সাত থেকে দশ বছরের মধ্যে এবং তারা দ্বিতীয়, তৃতীয় ও চতুর্থ গ্রেডের শিক্ষার্থী ছিল।

উভালদে কনসোলিডেটেড ইন্ডিপেনডেন্ট স্কুল ডিস্ট্রিক্ট চীফ অব পুলিশ পিট অ্যারেডোন্ডো বলেছেন, মঙ্গলবার স্থানীয় সময় ১১টা ৩২ এর দিকে গুলি শুরু হয়; আক্রমণকারী ‘এই জঘন্য অপরাধের সময় একা’ই ছিল বলে তদন্তকারীরা কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

অ্যাসোসিয়েটেড প্রেস নিউজ এজেন্সি জানিয়েছে, গুলি চালনার সময় কাছাকাছি থাকা একজন মার্কিন বর্ডার পেট্রল অফিসার স্কুলে প্রবেশ করেন এবং ব্যারিকেডের পেছনে থাকা বন্দুকধারীকে গুলি করে হত্যা করেন।

বর্ডার পেট্রোল হলো মার্কিন সীমান্তরক্ষী একটি ফেডারেল এজেন্সি। ঘটনাস্থল উভালদে মেক্সিকো সীমান্ত থেকে ৮০ মাইলেরও কম দূরে অবস্থিত; সেখানে বর্ডার পেট্রোলের একটি স্টেশন রয়েছে।

এদিকে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন হোয়াইট হাউজে দেয়া বিবৃতিতে ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেছেন, নির্বিচার গুলির এসব ঘটনায় তিনি ‘হতাশ ও ক্লান্ত’।

তিনি বলেন, “না জানি কতজন শিশু এই ঘটনা প্রত্যক্ষ করেছে- চোখের সামনে তারা তাদের সহপাঠীদের মরতে দেখেছে, যেন তারা কোনো এক যুদ্ধক্ষেত্রে! বাকি জীবনটাও তাদের এই দুঃসহ স্মৃতি বয়ে বেড়াতে হবে!”

নিহতদের প্রতি শোক জ্ঞাপন করতে জো বাইডেন দেশটির পতাকা অর্ধনিমিত রাখার ঘোষণা দিয়েছেন।

এছাড়াও শোক ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ও সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটনসহ দেশটির সর্বস্তরের রাজনীতিকরাই।

যুক্তরাষ্ট্রে স্কুলগুলোতে বন্দুক হামলা মারাত্মক আকার ধারণ করেছে। এডউইক নামক শিক্ষা বিষয়ক প্রকাশনার তথ্য অনুযায়ী, গত বছর দেশটিতে এমন ২৬টি ঘটনা ঘটেছে।

এমনকি প্রাইমারি থেকে হাই স্কুলে এ ধরনের কিছু হলে তা থেকে কিভাবে উদ্ধার পাওয়া যাবে সেসবও এখন শিক্ষার্থীদের হাতেকলমে শেখানো হয়।

এর আগে ২০১২ সালে স্যান্ডি হুক এলিমেন্টারি স্কুলে ২০ বছর বয়সী এক ব্যক্তির গুলিতে ২৬ জন নিহত হয়েছিল, যার মধ্যে ২০ জনই ছিল পাঁচ থেকে ছয় বছর বয়সী।

তাছাড়া গত মাসে দেশটির সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন (সিডিসি) জানায়, গাড়ি দুর্ঘটনাকে ছাড়িয়ে ২০২০ সালে মার্কিন শিশু-কিশোরদের মৃত্যুর প্রধান কারণ হয়ে ওঠে বন্দুক হামলা।