‘টুস করে ফেলে দিব’ বলা শব্দদূষণ: রিজভী

ছবি: সংগৃহীত
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

সিপ্লাস ডেস্ক: বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী মনে করেন, গাড়ির হর্ন বাজালেই শুধু শব্দদূষণ হয় না। প্রধানমন্ত্রীর চেয়ারে থেকে যখন কেউ বলেন ‘পদ্মা সেতু থেকে টুস করে ফেলে দিব’, তখন সেটিও বড় ধরনের শব্দদূষণ। এটি সমাজের মধ্যে প্রতিক্রিয়া তৈরি করে।

রাজধানীর সেগুনবাগিচায় এক আলোচনা সভায় রোববার তিনি এ কথা বলেন।

বিশ্ব পরিবেশ দিবসে রোববার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি মিলনায়তনে আলোচনা সভা করে বাংলাদেশ পরিবেশ রক্ষা ফোরাম।

প্রধান অতিথি রুহুল কবির রিজভী বলেন, ‘পদ্মা সেতুর উদ্বোধনের দিন প্রধানমন্ত্রী ৬৪ জেলায় উৎসব করবেন। অথচ দেশের কোটি কোটি মানুষ না খেয়ে হাহাকার করছে। ওনার মনে উৎসব আছে, জনগণের নেই। এসব উৎসব জনমনে কষ্ট বাড়াবে।

‘সরকার ফ্লাইওভার, মেট্রোরেল দেখাচ্ছে, আবার দেখাচ্ছে পদ্মা সেতু। অহংকার করে প্রধানমন্ত্রী বলছেন, সেতু থেকে টুস করে ফেলে দিবেন। গাড়ির হর্ন বাজালেই শুধু শব্দদূষণ নয়, প্রধানমন্ত্রীর এমন কথা বলাও বড় ধরনের শব্দদূষণ, যা সমাজের মধ্যে প্রতিক্রিয়া তৈরি করে।’

গ্যাসের দাম বাড়ানোর সমালোচনায় রিজভী বলেন, ‘উন্নয়নের নামে চুরি হয়েছে, সেই টাকা মেকআপ করতেই এখন গ্যাসের দাম বাড়ানোর ষড়যন্ত্র হচ্ছে। গ্যাসের দাম ৩৩ শতাংশ বাড়ানোর প্রস্তাব গণবিরোধী। জনগণের গলা কাটার জন্যই এসব ব্যবস্থা। দেশের মানুষকে তারা অধমে পরিণত করেছে।’

ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের (ডিইউজে) একাংশের সহসভাপতি রাশেদুল হকের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় বিএনপির শিক্ষাবিষয়ক সম্পাদক ড. ওবায়দুল ইসলাম, স্বাস্থ্যবিষয়ক সম্পাদক ডা. রফিকুল ইসলাম, বন ও পরিবেশবিষয়ক সম্পাদক কাজী রওনকুল ইসলাম টিপুসহ নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। এতে সভাপতিত্ব করেন বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য ডা. মাজাহারুল আলম।