টাঙ্গাইলে ৩ ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার সিলগালা

ছবি: সংগৃহীত
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

সিপ্লাস ডেস্ক: টাঙ্গাইলের পৌর এলাকায় অবৈধভাবে গড়ে ওঠা বিভিন্ন ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে ৩ প্রতিষ্ঠানকে সিলগালা এবং আরও ৩ প্রতিষ্ঠানকে ৮০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

আজ শনিবার সকাল ১০টা থেকে শুরু হওয়া অভিযানটি দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে শেষ হয়। অভিযানটি পরিচালনা করেন সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রানুআরা খাতুন।

অভিযান বিষয়ে তিনি বলেন, যথাযথ আইন অনুসরণ না করে পরিচালিত হওয়ায় পদ্মা, আমানত ও স্বদেশ নামের ৩ প্রতিষ্ঠানকে সিলগালা করা হয়েছে। একইসঙ্গে ডিজিল্যাবকে ৩০ হাজার, দি সিটিকে ২০ হাজার ও কমফোর্ট নামের একটি প্রতিষ্ঠানকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, এরমধ্যে ডিজিল্যাব নামের প্রতিষ্ঠানে রোগী ভর্তি থাকায় তাদের ২৪ ঘণ্টা সময় দেয়া হয়েছে। রোগী সরিয়ে নিলেই আগামীকাল তা সিলগালা করে দেওয়া হবে। অবৈধ, অনুমোদনহীন ও যথাযথ আইন অনুসরণ না করা সব প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে অভিযান চলমান থাকবে। অভিযান পরিচালনাকালে জেলা সিভিল সার্জন অফিসের সদস্যরাও উপস্থিত ছিলেন।

জেলা সিভিল সার্জন অফিসের তথ্যমতে, জেলার ৩ শতাধিক প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১৮১টি প্রতিষ্ঠানই অনুমোদনহীন।

স্থানীয় মানবাধিকারকর্মী নওশাদ রানা সানভী সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘লাইসেন্সবিহীন বেসরকারি ক্লিনিকগুলোর বিরুদ্ধে প্রশাসনের অভিযানকে স্বাগত জানাই। কিন্তু লাইসেন্স পাওয়া ক্লিনিক ও হাসপাতালগুলোও শর্তগুলো যথাযথভাবে মানছে কি না, তা দেখাও সমান জরুরি।’

‘অধিকাংশ লাইসেন্সধারী ক্লিনিকগুলো নিয়মনীতি না মেনে অপর্যাপ্ত ও অদক্ষ জনবল নিয়েই ব্যবসা করে যাচ্ছে। যার জন্য মাঝেমধ্যে ভুল চিকিৎসায় মৃত্যুর ঘটনা ঘটছে। এসব ক্লিনিকে চিকিৎসা ও পরীক্ষা-নিরীক্ষার খরচও অনেক বেশি। তবে, এসব অধিকাংশ ক্লিনিকের মালিক সরকারি দলের প্রভাবশালী নেতা হওয়ায় কর্তৃপক্ষ তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয় না’, যোগ করেন তিনি।