টাকায় মিলে শিক্ষা সনদ, জন্ম নিবন্ধন সনদ- রাউজান থানা পুলিশের হাতে আটক দুই জাল সনদ প্রস্তুতকারক

CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

রাউজান থানা পুলিশ বিভিন্ন ধরণের জাল সনদপত্র তৈরীর সরঞ্জামসহ দুই যুবককে গ্রেফতার করেছে। ১১ অক্টোবর সন্ধ্যা সাতটায় রাউজান থানা পুলিশ প্রেস ব্রিফিংয়ের মাধ্যমে এই তথ্য জানান।

থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কেপায়েত উল্লাহ জানিয়েছেন, জাল সনদ তৈরীকারীদের হেফাজত থেকে বিপুল সংখ্যক নকল জাতীয় সনদ, চট্টগ্রাম মহানগরের বিভিন্ন ওয়ার্ড ও দেশের বিভিন্ন জেলা উপজেলার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ট্রেড লাইসেন্স, জন্মনিবন্ধন, শিক্ষাগত সনদ পাওয়া গেছে।পুলিশ একাজে ব্যবহৃত কম্পিউটার, ল্যাপটপ, স্ক্যানার জব্দ করেছে।

থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কেপায়েত উল্লাহ অভিযানের বর্ণনা দিয়ে বলেন, উরকিরচর ইউনিয়নের একটি কিশোরীর আঠারো বছর পূর্ণ করে জাল জন্ম নিবন্ধন তৈরীর কাজে সহযোগিতা করছিলেন একই ইউনিয়নের হারপাড়া গ্রামের জনৈক আবুল কালামের পুত্র মোহাম্মদ মাহফুজ। স্থানীয় চেয়ারম্যান সৈয়দ আবদুল জব্বার সোহেল বিষয়টি টের পেয়ে তাকে হাতেনাতে আটক করেন। মানুষের চাহিদা অনুসারে টাকার বিনিময়ে মোহরার গোলাপের দোকান এলাকার একটি দোকান হতে বিভিন্ন ধরণের জাল সনদ তৈরী করে দিয়ে থাকে বলে তিনি স্থানীয় চেয়ারম্যানের কাছে স্বীকারোক্তি দেন।

চেয়ারম্যানের বিষয়টি অবহিত করেন থানা পুলিশকে। তার স্বীকারোক্তি অনুসারে রাউজান থানা পুলিশের একটি দল তাকে নিয়ে গত বৃহস্পতিবার রাতে চান্দগাও থানাধীন মোহরার গোলাপের দোকান এলাকায় আঁখি ডিজট্যাল স্টুডিও নামক একটি দোকানটিতে অভিযান চালায়। এসময় জাল সনদ তৈরীর হোতা দোকানের মালিক নগরীর মাদারবাড়ী এলাকার মৃত জাফর আহমদ এর পুত্র রাজু আহমদ ওরফে হিরাকে গ্রেফতার করে। এই দোকানে তল্লাশী করে বিপুল সংখ্যক জাল সনদ, স্টাম্প, শীল উদ্ধার করা হয়।

তার তথ্যমতে পুলিশ তার বাসা হতেও বিপুল পরিমাণ জল সনদ এবং সনদ তৈরীর কাজে ব্যবহৃত যন্ত্রপাতি উদ্ধার করে। জাল সনদ তৈরির হোতা রাজু আহমদ জাল সনদ তৈরীর কথা স্বীকার করে বলেছেন, তার ফটোকপির দোকানে বিভিন্ন ধরণের সনদ নিয়ে মানুষ ফটোকপি করতে আসলে সেগুলোর একটি কপি তার সংগ্রহে রেখে দেয়। পরে ওসব সনদ অনুকরণ করে মানুষের চাহিদামত সনদ তৈরী করে দিয়ে থাকে। পুলিশের উদ্ধার করা জাল সনদ সমূহের মধ্যে দেশের বিভিন্ন জেলা উপজেলার জাতীয় সনদ,শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদ,জন্মনিবন্ধন, বিভিন্ন ট্রেড লাইসেন্সের কপি রয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে আটক দুজনের নামে ডিজিট্যাল আইনে (২০১৮) মামলা রুজু করা হয়েছে।

উল্লেখ্য যে, ইতিপূর্বে বিভিন্ন দৈনিকে রাউজানসহ বিভিন্ন এলাকার জনপ্রতিনিধিদের স্বাক্ষর ও সনদ জাল করে প্রতারক চত্র রোহিঙ্গাদের পাসপোর্ট তৈরী করার কাজে সহায়তা করার একাধিক প্রতিবেদন প্রকাশ পায়।