জিতুকে বহিষ্কার, ৫ দিন পর ক্লাস শুরু

ছবি: সংগৃহীত
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

সিপ্লাস ডেস্ক: আশুলিয়ার হাজী ইউনুছ আলী স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষক উৎপল কুমার সরকারকে হত্যায় অভিযুক্ত ছাত্র আশরাফুল ইসলাম জিতুকে আজীবনের জন্য বহিষ্কার করেছে স্কুল কর্তৃপক্ষ। শনিবার প্রতিষ্ঠানটির অধ্যক্ষ সাইফুল হাসান বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, “বৃহস্পতিবার কলেজের একাডেমিক কাউন্সিলে জিতুকে স্থায়ী ভাবে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়’। এদিকে উৎপল হত্যাকাণ্ডে টানা ৫ দিন শিক্ষা কার্যক্রম বন্ধ থাকার পর শনিবার পূর্বঘোষণা অনুযায়ী সকাল সাড়ে ৭টা থেকে প্রতিষ্ঠানটির প্রাথমিক শাখার পাঠদান শুরু করে কর্তৃপক্ষ। এরপর সকাল ১১টা থেকে শুরু হয় হাইস্কুল ও কলেজ শাখার পাঠদান।

যদিও ক্লাসে শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি কম। নিরাপত্তাও জোরদার করা হয়েছে। অধ্যক্ষ বলেন, “স্বাভাবিক পাঠদান শুরু করেছি আমরা। তবে ছাত্র-ছাত্রীর উপস্থিতি খুবই কম। সত্যিকার অর্থে এখনও অনেকের আতঙ্ক কাটেনি। তার ওপর ঈদ চলে আসায় অনেক শিক্ষার্থী গ্রামের বাড়ি চলে যাওয়ায় উপস্থিতি কম।”

অন্যদিকে, অভিযুক্ত ছাত্র আশরাফুল ইসলাম জিতুকে গ্রেপ্তারের পর কিছুটা হলেও স্বস্তিতে শিক্ষার্থীরা। তবে প্রিয় সহকর্মীকে ছাড়া ৫ দিন পর ক্লাসে ফিরে বিমর্ষ অনেক শিক্ষক। এদিকে স্কুল শেষে নিহত শিক্ষকের স্মরণে এবং গ্রেপ্তারকৃত জিতু ও তার বাবার সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিতে প্রতীকি মানববন্ধন পালন করেছেন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা।

উল্লেখ্য, গত ২৫ জুন, আশুলিয়ার হাজী ইউনুস আলী স্কুল এন্ড কলেজের দশম শ্রেণীর ছাত্র আশরাফুল ইসলাম জিতু স্ট্যাম্প দিয়ে মাথায় আঘাত করে শিক্ষক উৎপল কুমার সরকারকে। পরে তাকে সাভারের একটি হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি করা হলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

হত্যার ঘটনায় এরই মধ্যে পুলিশ ও র‍্যাবের হাতে গ্রেপ্তার হয়েছে অভিযুক্ত ছাত্র জিতু ও তার বাবা। তারা দুজনই পুলিশি রিমান্ডে আছেন। এদিকে স্কুলের নিরাপত্তায় আশুলিয়া থানা পুলিশের একটি টিম মোতায়েন করা হয়েছে।