জঙ্গল সলিমপুরে প্রকৃত ভূমিহীনদের পুনবার্সন করা হবে-পরিদর্শনে ভূমি মন্ত্রী জাবেদ

ছবি:সিপ্লাসটিভি.নিউজ
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

কামরুল ইসলাম দুলু: প্রাকৃতিক পরিবেশ সমুন্নত রেখে পরিকল্পিত পরিবেশ বান্ধব উন্নয়ন কার্যক্রম বাস্তবায়ন ও নগরায়ণে বর্তমান সরকার বদ্ধ পরিকর।

পরিবেশ সমুন্নত রেখে উন্নয়ন প্রকল্প গ্রহণের জন্য সীতাকুণ্ড উপজেলার জঙ্গল ছলিমপুর একটি আদর্শ স্থান। চট্টগ্রাম শহর থেকে এর দূরত্ব মাত্র ১০কিমি।

এখানে ০৫টি মৌজায় মোট খাস জমির পরিমাণ প্রায় ২৮০০ একর। এর পূর্ব ও উত্তরে রয়েছে চট্টগ্রাম সেনানিবাস ও বাংলাদেশ মিলিটারি একাডেমি, পশ্চিমে বঙ্গোপসাগর, দক্ষিণে চট্টগ্রাম শহর।

কতিপয় ভূমি দস্যু নব্বই দশক থেকে এখানে পাহাড় কেটে পরিবেশ বিপন্ন করে জঙ্গল ছলিমপুরকে অবৈধ বসবাসকারী অপরাধীদের স্বর্গরাজ্য হিসেবে গড়ে তুলেছে। অবৈধভাবে পাহাড় কেটে তৈরি করা ঝুকিপূর্ণ প্লটগুলো দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে অপকর্ম করে আসা সন্ত্রাসীদের নিকট বিক্রি করা হচ্ছে ।

বর্তমান সরকার জঙ্গল সলিমপুরকে ঘিরে মহাপরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। এখানে আর কোন ভূমিদস্যু, কোন সন্ত্রাসীর জায়গা হবে না। জঙ্গল সলিমপুরে কেন্দ্রীয় সরকারের মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়ন ও প্রকৃত ভূমিহীনদের পুনবার্সন সংক্রান্ত মতবিনিময় সভায় উপরোক্ত কথাগুলো বলেন বন মন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী এমপি।

রবিবার বিকাল ৫টার সময় তিনি সীতাকুণ্ড উপজেলার সলিমপুর ইউনিয়নের জঙ্গল সলিমপুর এলাকা পরিদর্শন যান। তিনি বলেন, এই স্থানকে ভূমিদস্যুদের হাত থেক মুক্ত করে এখানে বসবাসকারী ছিন্নমূল জনসাধারনকে পুনর্বাসন জরুরী হয়ে দাঁড়িয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় চট্টগ্রাম জেলার সীতাকুণ্ড উপজেলার পাহাড়বেষ্টিত জঙ্গল ছলিমপুরে কিছু উন্নয়ন প্রকল্প তৈরীর কার্যক্রম সরকার হাতে নিয়েছে।

জঙ্গল ছলিমপুরে বাস্তবায়নের জন্য প্রস্তাব করা হয়েছে। তারমধ্যে রয়েছে আধুনিক সুযোগ সুবিধা সম্বলিত একটি স্পোর্টস ভিলেজ, জনসাধারণের চিকিৎসার জন্য হার্ট ফাউন্ডেশন হসপিটাল, চট্টগ্রাম নগরীর সর্বসাধারণের জন্য একটি সাফারি পার্ক, কেন্দ্রীয় কারাগার, একটি নান্দনিক মসজিদ, উচ্চ শক্তির বেতার সম্প্রচার কেন্দ্র,পাহাড় ব্যাবস্থাপনা কমিটির প্রশিক্ষণ কেন্দ্র এবং ছিন্নমূল জনসাধারণের পুনর্বাসন।

জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মমিনুর রহমানের সভাপতিত্বে এবং উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: শাহাদাত হোসেন এর পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অথিতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম সিটি মেয়র রেজাউল করিম চৌধুরী।

অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিদ্যুতের প্রধান প্রকৌশলী রেজাউল করিম, মন্ত্রীর একান্ত সচিব রেজ্জাকুল ইসলাম, উপপরিচালক স্থানীয় সরকার ড.বদিউল আলম, উপজেলা চেয়ারম্যান এস এম আল মামুন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব), মোহাম্মদ নাজমুল আহসান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ( এল এ) মাসুদ কামাল, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো: আশরাফুল আলম, রাউজানের উপজেলা চেয়ারম্যান এহছানুল হায়দার চৌধুরী বাবুল, সলিমপুর ইউপি চেয়ারম্যান সালাউদ্দিন আজিজ প্রমুখ।