ছাত্রলীগ নেতার হয়ে ‘প্রক্সি পরীক্ষা’ দিতে গিয়ে আটক চবি শিক্ষার্থী!

প্রতীকী ছবি
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক: চট্টগ্রাম সরকারি মহিলা কলেজ কেন্দ্রে এক ছাত্রলীগ নেতার হয়ে প্রক্সি-পরীক্ষা দেওয়ার সময় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের এক সাবেক শিক্ষার্থীকে আটক করেছে কলেজ কর্তৃপক্ষ। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিগ্রি তৃতীয় বর্ষের পরীক্ষায় এই জালিয়াতির আশ্রয় নেওয়া হয়।

ছাত্রলীগের ওই নেতা মহিম আজম চৌধুরী নগরের ওমর গনি এমইএস কলেজের ডিগ্রির শিক্ষার্থী। তিনি কলেজ ছাত্র সংসদের ভিপি এবং ১৩নং পাহাড়তলী ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. ওয়াসিম উদ্দিন চৌধুরী নিয়ন্ত্রিত ছাত্রলীগের একটি অংশের নেতা। তার হয়ে পরীক্ষায় অংশ নেওয়া সোহাগ হোসেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং বিভাগ থেকে সদ্য স্লাতক পাশ করেছেন।

এ ঘটনায় নগরের খুলশী থানায় একটি সাধারণ ডায়রি দায়ের করা হয়েছে বলে গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন মহিলা কলেজের ভাইস প্রিন্সিপাল প্রফেসর সালমা রহমান।

তিনি বলেন, ‘আজ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিগ্রি তৃতীয় বর্ষের পরীক্ষা চলাকালে মহিম আজম চৌধুরীর নামে অন্য এক শিক্ষার্থী পরীক্ষা দিচ্ছিল। আমাদের শিক্ষকরা বিষয়টি শনাক্ত করার পর, তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে নিজেকে চবির সাবেক শিক্ষার্থী সোহাগ হোসেন হিসেবে পরিচয় দেয় এবং মহিম আজম চৌধুরীর হয়ে প্রক্সি-পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার বিষয়টি স্বীকার করে।’

পরে তাকে থানায় সোপর্দ করা হয়।

তবে খুলশী থানার উপ-পরিদর্শক মোহাম্মদ ইকবাল বলেন, ‘প্রক্সি-পরীক্ষা দেওয়া ওই যুবককে প্রথমে থানায় নিয়ে আসা হলেও, এসময় আমাদের বারবার অনুরোধ সত্ত্বেও তার বিরুদ্ধে মামলা করতে রাজি হয়নি কলেজ কর্তৃপক্ষ। পরে তাকে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে কলেজের ভাইস প্রিন্সিপাল প্রফেসর সালমা রহমান বলেন. ‘বিষয়টি নিয়ে আমরা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের কন্ট্রোলারের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিলাম। তারা জানিয়েছেন, মামলা হলে ঝামেলা হবে তাই উনাদের পরামর্শে সাধারণ ডায়রি দায়ের করা হয়েছে। এখন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় এই ঘটনায় ব্যবস্থা নেবে, এ ক্ষেত্রে জিডি-ই মামলা হয়ে যাবে।’