চন্দনাইশে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে মানববন্ধন

: চন্দনাইশে শুচিয়া রাম কৃষ্ণ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক টিকলু দাশগুপ্ত।
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

চন্দনাইশ প্রতিনিধি: চন্দনাইশে শুচিয়া রাম কৃষ্ণ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক টিকলু দাশগুপ্ত’র অনৈতিক, ঔদ্যত্বপূর্ণ, অশিক্ষকসুলভ আচরণ এবং বিদ্যালয়ের গুরুত্বপূর্ণ দলিল-দস্তাবেজের পাচার ও অপব্যবহারের বিরুদ্ধে মানবন্ধন করেছেন স্কুলের শিক্ষার্থীদের অভিভাবক, স্থানীয় শিক্ষানুরাগী, প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রী ও এলাকাবাসী।

স্কুলের প্রাক্তন ছাত্র তৃষিত চৌধুরী এফসিএ-র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন সাবেক দাতা কিশোর চৌধুরী, সুবাস দাশ, পলাশ দাশ, প্রাক্তন ছাত্র বিকাশ বিশ্বাস, মাস্টার ধর্জুটি প্রসাদ চৌধুরী, নিখিল নন্দী, দুলাল শীল, মাস্টার মধু শীল, মৃদুল বৈদ‍্য, সঞ্জয় ভট্টাচার্য্য, সুবল দেব, শ্রীকান্ত বৈদ্য, লিটন হোড়, রঞ্জন চৌধুরী, মাস্টার মিলন দাশ, নির্মল বিশ্বাস, রূপক চৌধুরী, তিলক চক্রবর্তী, আওয়ামীলীগ নেতা পুষ্পেন বড়ুয়া, বাসু তালুকদার, নন্দন চক্রবর্ত্তী, দুলাল বিশ্বাস, রূপক বিশ্বাস, বরমা ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মধুসূদন দত্ত, বরকল ইউনিয়নের মেম্বার প্রিয়ব্রত গোস্বামী তনু, মহিলা মেম্বার ঝর্ণা দাশ, সাবেক মেম্বার রূপন বিশ্বাস, অনিল বিশ্বাস, অনিল দাশ, বাবুল দাশ সাধু, ঝুলন দত্ত প্রমুখসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

বক্তারা বলেন, ঐতিহ্যবাহী শুচিয়া রামকৃষ্ণ উচ্চ  বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক টিকলু দাশগুপ্ত’র অনৈতিক, ঔদ্যত্বপূর্ণ, অশিক্ষকসুলভ আচরণ এবং বিদ্যালয়ের গুরুত্বপূর্ণ দলিল-দস্তাবেজের পাচারও  অপব্যবহারের বিরুদ্ধে এবং শিক্ষার্থীদের রেজিষ্ট্রেশন ফি ও ইউনিক আইডি বাবদ মোটা অংকের টাকা নিয়েছেন। উপবৃত্তির জন্য প্রত্যেক শিক্ষার্থীর নিকট থেকে রশিদ ছাড়া টাকা আদায় করেছেন। অভিভাবকদের না জানিয়ে গোপনে নিজস্ব লোকজন দিয়ে ম্যানেজিং কমিটি গঠন করেছেন। এ বিষয়ে কয়েকজন অভিভাবক  টিকলু দাশ গুপ্তের  নিকট জানতে চাইলে তিনি অভিভাবকদের সাথে অসৌজন্যমূলক আচরণ করেন। এছাড়াও তার বিরুদ্ধে নানা কাজের অজুহাতে বিদ্যালয়ের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ রয়েছে। বক্তারা অবিলম্বে বিদ্যালয়ের দুর্নীতিবাজ প্রধান শিক্ষকের শাস্তি দাবি করে প্রশাসনের দৃষ্টি কামনা করেন।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে প্রধান শিক্ষক টিকলু দাশ উনার বিরুদ্ধে আনীত সকল অভিযোগ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন বলে দাবী করেন।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা জানান, আমি মানববন্ধনস্থলে পৌঁছে এলাকার নেতৃস্থানীয় ব্যক্তিদের সাথে কথা বলে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগের বিস্তারিত জানাতে বলেছি, সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে প্রকৃত সত্য উদঘাটন করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও তিনি জানান।