‘গণতন্ত্র মঞ্চ’ সরকারকে কঠিন চ্যালেঞ্জে ফেলবে: রব

ছবি: সংগৃহীত
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

সিপ্লাস ডেস্ক: ‘গণতন্ত্র মঞ্চ’ ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকারকে কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলবে বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জেএসডি) সভাপতি আ স ম আবদুর রব।

তিনি বলেন, ‘গণতন্ত্রহীনতা, অপশাসন, দুর্নীতি এবং বৈধতার সংকটে সরকার আজ বিপর্যস্ত হয়ে খাদের কিনারে টলটলায়মান।’

বুধবার (১ জুন) দলের স্থায়ী কমিটির সভায় তিনি এসব কথা বলেন। আ স ম আবদুর রবের উত্তরার বাসভবনে স্থায়ী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়।

আব্দু রব বলেন, রাতের ভোটকে কেন্দ্র করে সরকার নিজেই নিজের রাজনৈতিক ক্ষমতাকে ধ্বংস করে ফেলেছে। রাজনৈতিকভাবে সরকার রাষ্ট্রপরিচালনায় এবং কর্তব্য পালনে অক্ষম হয়ে পড়েছে। এ অক্ষমতাকে ঢাকতেই রাজনীতিকে সংঘাতের পথে ঠেলে দিচ্ছে তারা।

তিনি বলেন, ‘গণতন্ত্র মঞ্চ’ জনগণকে সঙ্গে নিয়ে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের মাধ্যমে দুঃশাসনের বিরুদ্ধে দুর্বার প্রতিরোধ গড়ে তুলতে অভিযাত্রা শুরু করেছে। এ মঞ্চ আগামী দিনে গণজাগরণ ও গণঅভ্যুত্থানের সম্ভাবনাকেই অনিবার্য করে তুলবে।’

জেএসডি স্থায়ী কমিটির সভায় ক্রমবর্ধমান সামাজিক এবং রাজনৈতিক সংকটের পরিপ্রেক্ষিতে একই সঙ্গে ‘সরকার’ এবং ‘শাসন ব্যবস্থা’ পরিবর্তনের লক্ষ্যে ‘গণতন্ত্র মঞ্চ’-এর আত্মপ্রকাশের সিদ্ধান্তকে অভিনন্দন জানিয়ে গৃহীত রাজনৈতিক প্রস্তাবে বলা হয়, ‘ফ্যাসিবাদ এবং স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে সুনির্দিষ্ট রাজনৈতিক কর্মসূচির ভিত্তিতে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনই হচ্ছে একমাত্র বিকল্প।’

সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তৃতা করেন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য অ্যাডভোকেট ছানোয়ার হোসেন তালুকদার, সাবেক জেলা ও দায়রা জজ সা কা ম আনিছুর রহমান খান, তানিয়া রব ও শহীদ উদ্দিন মাহমুদ স্বপন প্রমুখ।

জেএসডি, নাগরিক ঐক্য, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি, গণঅধিকার পরিষদ, ভাসানী অনুসারী পরিষদ, রাষ্ট্র সংস্কার আন্দোলন ও গণসংহতি আন্দোলন— এ সাতটি রাজনৈতিক দলের নতুন জোট হিসেবে আত্মপ্রকাশ করতে যাচ্ছে ‘গণতন্ত্র মঞ্চ’। এ জোট গঠনে প্রাথমিকভাবে দলগুলো একমত হয়েছেন। গত ২৯ মে প্রথম বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয়। আগামী ১২ মে এ জোট গঠনে দ্বিতীয় বৈঠকে বসবে সাতটি দলের শীর্ষ নেতারা।