খুলনায় চাঁদাবাজির অভিযোগে ডিবির ৭ সদস্য বরখাস্ত

CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

একটি মোটরসাইকেলের শো-রুমে অভিযানের নামে ১০ লাখ টাকা চাঁদা দাবির অভিযোগে খুলনা জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের এক এসআই ও তিন এএসআইসহ ৭ পুলিশ সদস্যকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

একই ঘটনায় দায়িত্বে অবহেলার অভিযোগে জেলা ডিবির ওসি তোফায়েল আহমেদকেও স্ট্যান্ড রিলিজ করা হয়েছে।

মঙ্গলবার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন খুলনা জেলা পুলিশ সুপার এসএম শফিউল্লাহ।

সাময়িক বরখাস্ত হওয়া ৭ পুলিশ সদস্য হলেন- ডিবির এসআই লুৎফর রহমান, এএসআই কেএম হাসানুজ্জামান, এএসআই শেখ সাইদুর রহমান, এএসআই গাজী সাজ্জাদুল ইসলাম এবং ৩ জন কনস্টেবল হলেন- মো. কামরুজ্জামান বিশ্বাস, জামিউল হাসান ইমন ও জুয়েল শেখ।

অভিযোগে জানা গেছে, সম্প্রতি ডুমুরিয়ার চুকনগর এলাকার আব্দুল্লাহ মটরস নামক একটি মোটরসাইকেলের শো-রুমে অভিযান চালায় ডিবির উল্লিখিত সদস্যরা। সেখান থেকে ওই শো-রুম মালিকের ছেলেকে আটক করে তারা ১০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে।

পরে ৫ লাখ নিয়ে তাকে ছেড়ে দেয়। কিন্তু আরও ৫ লাখের দাবিতে হুমকি দিচ্ছিল তারা। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্টরা পুলিশ সুপারের কাছে লিখিত অভিযোগ দাখিল করেন।

জেলা পুলিশ সুপার এসএম শফিউল্লাহ জানান, খুলনার ডুমুরিয়ার চুকনগর থেকে একটি আর্থিক লেনদেনের অভিযোগ এসেছে এদের বিরুদ্ধে। আর্থিক লেনদেনে যেহেতু আমরা জিরো টলারেন্স, তাই সোমবার রাতে ৭ জন পুলিশকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। এরপর তদন্ত করে দেখা হবে কে জড়িত, কে জড়িত নয়। দোষী প্রমাণিত হলে অভিযুক্তদের চাকরি থেকে স্থায়ীভাবে বরখাস্ত করা হবে বলেও জানান তিনি।

জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আনিচুর রহমান জানিয়েছেন, জেলা ডিবির ইন্সপেক্টর তোফায়েল আহমেদকে মেহেরপুরে স্ট্যান্ড রিলিজ করা হয়েছে।