খুটাখালীতে গভীর রাতে পুলিশ পরিচয়ে ব্যবসায়ীর সর্বস্ব লুট!

খুটাখালীতে গভীর রাতে পুলিশ পরিচয়ে ব্যবসায়ীর সর্বস্ব লুট!
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

ঈদগাঁও প্রতিনিধি: গভীর রাতে পুলিশ পরিচয়ে মাইক্রোবাস যোগে সশস্ত্র ডাকাতরা অস্ত্রের মুখে মোটরসাইকেল আরোহীদের জিম্মি করে নগদ টাকা, দামী মোবাইল সেট লুটে নিয়েছে। এসময় ডাকাতের প্রহারে আহত হয়েছে ব্যবসায়ীসহ তিনজন।

গত শনিবার রাত আড়াইটার সময় চকরিয়া উপজেলার খুটাখালী ইউনিয়নের সেগুন বাগিচা সড়কের তত্তারব্রীজ নামক এলাকায় ঘটে ডাকাতির এ ঘটনা।

অভিযেগে জানা গেছে, এদিন রাতে বর্নিত ইউনিয়নের সেগুন বাগিচা গ্রামের পান ব্যবসায়ী মোঃ ইলিয়াছ মোটর সাইকেলে করে বাড়ী থেকে বাজারে ফিরছিলেন। এসময় তাদের মোটর সাইকেল তত্তারব্রীজ নামক এলাকায় পৌঁছলে রাস্তার পাশে দাঁড়ানো মাইক্রোবাসে থাকা লোকজন তাদের গতিরোধ করে প্রশাসনের লোক পরিচয় দিয়ে তল্লাশি করেন।

একপর্যায়ে ব্যবসায়ী মোঃ ইলিয়াছ ও মোটরসাইকেল চালককে হাত-পা বেঁধে ফেলে ধানি জমিতে ফেলে দেয়। এসময় তাদের কাছ থেকে নগদ ৪০ হাজার টাকা ও মোবাইল সেট ছিনিয়ে নেয়।

অপরদিকে বাজার থেকে মোটর সাইকেল যোগে ঘরে ফিরছিলেন ব্যবসায়ী গিয়াস উদ্দীন। তাদেরকে একই কায়দায় বেঁধে মারধর করে টাকা মোবাইল ছিনিয়ে নেয়।

এর কিছুক্ষণ পর খুটাখালী বাজার থেকে সেগুন বাগিচা যাচ্চিলেন মোটরসাইকেল রাইডার ছোটন। তাকেও গতিরোধ করে মারধর করে টাকা মোবাইল ফোন কেড়ে নেয়।

ছোটন বলেন, তারা সংখ্যায় ৭/৮ জন। প্রথমে তারা পুলিশের লোক পরিচয় দেয়। তাদের প্রত্যকের হাতে অস্ত্র রয়েছে। আমি রাইডার পরিচয় দেয়ার পর বারবার জিঙ্গাসা করেন

পান ব্যবসায়ীরা কোথায়। অস্বীকার করায় হাতে-পায়ে আঘাত করে বেঁধে রাস্তার পাশে বসিয়ে রাখে। পরে মাইক্রোবাসে করে পালিয়ে যায়।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন গত বছরের ২১ জুন একই এলাকায় ফিল্মি কায়দায় পথচারীদের গতিরোধ করে ডাকাতি করে। চলতি বছরের আগষ্ট মাসেও ড্রাইভার ফরিদকে কুপিয়ে জখম করে।

স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বার নুর মোহাম্মদ পেটান বলেন, বিষয়টি লোকমুখে শুনে প্রশাসনকে অবহিত করা হয়েছে।

খুটাখালী ইউনিয়নের দায়িত্বপ্রাপ্ত চকরিয়া থানা পুলিশের এসআই মোঃ ইস্রাফিল জানিয়েছেন এমনতর ঘটনা কেহ জানায়নি। আপনার মাধ্যমে জানলাম। খোঁজখবর নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান এ কর্মকর্তা।