কালারমারছড়া নির্বাচনি এলাকায় ভীতিকর পরিস্থিতি, শঙ্কা কাটছে না

মনোয়ন ফরম যাচাই অনুষ্ঠানে ওসির হুশিয়ারী

ছবি: সংগৃহীত
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক: বৃহস্পতিবার (১৯ মে) দুপুরে কক্সবাজারের মহেশখালী উপজেলা প্রশাসনের হলরুমে  নবম ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনের যাচাই-বাচাই শেষ করেছে নির্বাচন কমিশন।

আগামী ১৫ জুন ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা বিমলেন্দু কিশোর পাল, মহেশখালী থানার  ওসি মোহাম্মদ আব্দুল হাই, বিভিন্ন চেয়ারম্যান,মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ও মেম্বার পদের প্রার্থীরা।

এ সময় ওসি আব্দুল হাই কঠোর হুশিয়ারী দিয়ে বলেন, কালারামারছড়া কোন প্রার্থী বা সমর্থকরা অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে চাইলে কঠোর হস্তে দমন করা হবে। প্রতীক পাওয়ার পর নির্বাচনি প্রচার-প্রচারনায় ব্যস্ত সময় পার করবেন প্রার্থীরা।

এ নির্বাচন নিয়ে উত্তেজনা-অজানা শঙ্কা রয়েছে ভোটার ও প্রার্থীদের মধ্যে। নবম ধাপের ভোট গ্রহণের আগে ব্যাপক সহিংসতার ঘটনা সৃষ্টি হয়ে ভীতিকর অবস্থা সৃষ্টি হতে পারে সংশ্লিষ্ট নির্বাচনী এলাকায় এমনটি মনে করছেন সচেতন মহল। তাই উপজেলার কালারমারছড়া ইউনিয়নের ৯টি ওয়ার্ডের মধ্যে ৭নং ওয়ার্ড কালারমারছড়া বাজার এলাকায় রাজনৈতিক নেতাদের আশ্রয়ে সন্ত্রাসী ও মাস্তানদের নির্বাচনি মাঠে প্রকাশ্য দেখা যাওয়ায় প্রার্থী ও ভোটাররা শঙ্কিত। তাই উক্ত এলাকায় নির্বাচনের আগে আইনশৃঙ্খলার বাহিনীর টহল জোরদার রাখার দাবি জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট এলাকাবাসী।

অপরদিকে ভোট নিয়ে টানটান উত্তেজনা বিরাজ করবে বড় মহেশখালী ও কালারমারছড়া দুই ইউপিতেই। ভোট কেন্দ্রে যেতে ভয় পাচ্ছেন সাধারণ ভোটাররা। এছাড়া সাম্প্রতিক আচারণবিধি লঙ্গন করে নৌকার প্রার্থীর কিছু ঘটনার কারণে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে অন্য প্রার্থীরাও উদ্বিগ্ন।

যদিও উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা বিমেলেন্দু কিশোর ভোটারদের অভয় দিয়ে নির্বিঘ্নে কেন্দ্রে যাওয়ার আহ্বান জানিয়েছে। তিনি বলেছেন, নির্বাচন নির্বিঘ্ন করতে চার স্তরের নিরাপত্তাব্যবস্থা থাকবে নির্বাচনী এলাকায়।