কাপ্তাই পুজা মন্ডপ পরিদর্শনে জেলা প্রশাসক

কাপ্তাই জয়কালী মন্দির পরিদর্শনে রাঙামাটি জেলা প্রশাসক।
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

কাপ্তাই প্রতিনিধি: শারদীয় দুর্গা পুজার মহা অষ্টমীতে সোমবার বিকেল হতে সন্ধ্যা পর্যন্ত কাপ্তাই উপজেলার লগগেইট জয়কালী মন্দির, শিলছড়ি পুজা মন্ডপ, কেপিএম কয়লার ডিপু হরি মন্দির পূজা মন্ডপ, মিশন এলাকা সার্বজনীন শ্রীশ্রী রাধাকৃষ্ণ মন্দির এবং রাইখালী শ্রীশ্রী ত্রিপুরা সুন্দরী কালি মন্দির এর পুজা মন্ডপ পরিদর্শন করেন রাঙ্গামাটির জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মিজানুর রহমান।

এইসময় তিনি কাপ্তাই লকগেইট শ্রী শ্রী জয়কালী মন্দিরে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য প্রদান করেন।

বক্তব্যে তিনি বলেন, বাংলাদেশ একটি অসাম্প্রদায়িক চেতনার দেশ, এ দেশে সকল ধর্মের মানুষ যার যার ধর্মীয় উৎসব সমান ভাবে আনন্দ আয়োজনের মধ্য দিয়ে পালন করে। তাছাড়া যারা সাম্প্রদায়িক কর্মকান্ড সৃষ্টি করে, তারা খারাপ মানুষ, তাদের প্রতিহত করতে হবে। কেউ যেন বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে না পারে সেইজন্য প্রশাসন এবং আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা সবসময় সজাগ আছে বলে তিনি অবগত করেন।

লগগেইট জয়কালী মন্দির পরিচালনা কমিটির সভাপতি সমীর প্রসাদ ধরের সভাপতিত্বে কাপ্তাই প্রেস ক্লাব সাধারণ সম্পাদক ঝুলন দত্তের সঞ্চালনায় এসময় রাঙামাটি অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোঃ সাইফুল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (আইসিটি ও শিক্ষা) মোছামৎ নাসরিন সুলতানা, রাঙামাটি জেলা পরিষদ সদস্য অংসুই ছাইন চৌধুরী, সদস্য দীপ্তিময় তালুকদার, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মুনতাসির জাহান, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মারজান হোসাইন, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান উমেচিং মারমা, , ৪নং কাপ্তাই ইউপি চেয়ারম্যান প্রকৌশলী আব্দুল লতিফ, কাপ্তাই প্রেস ক্লাব সাধারণ সম্পাদক কবির হোসেন, উপজেলা সিনিয়র প্রকৌশলী মনিরুল ইসলাম চৌধুরী, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা রুহুল আমিন, সমাজসেবা কর্মকর্তা নাজমুল হাসান, খাদ্য গুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নিপু চন্দ্র দাশ, কাপ্তাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি কাজী মাকসুদুর রহমান বাবুল সহ জনপ্রতিনিধি এবং মন্দির পরিচালনা কমিটির সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন ।

স্বাগত বক্তব্য রাখেন কাপ্তাই জয়কালী মন্দির পরিচালনা কমিটির সাবেক সভাপতি সমলেন্দু বিকাশ দাশ ও উপজেলা পুজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মন্দির পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক প্রিয়তোষ ধর পিন্টু।

পরে তিনি উপজেলার অন্যান্য মন্দির পরিদর্শন করেন।