কনসার্টে অর্ণবের গান শুনে কাঁদলেন দীঘি

ছবি: সংগৃহীত
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

সিপ্লাস ডেস্ক: কয়েক ঘণ্টার টানা বৃষ্টির কারণে গতকাল (৯ জুন) আর্মি স্টেডিয়ামের অনুষ্ঠিত কোক স্টুডিও বাংলা কনসার্টের সব আয়োজন শুরুতে বিপর্যস্ত হয়েছিল। যার কারণে বিকেলের পর এই মেগা কনসার্ট স্থগিতেরও ঘোষণা দেওয়া হয়। তবে সেই সিদ্ধান্ত বাতিল করে শেষ পর্যন্ত রাত ৯টায় শুরু হয় বহুল আলোচিত এই কনসার্ট।

নেচে-গেয়ে-চিৎকারে এই আয়োজন দারুণ উপভোগ করেন উপস্থিত দর্শক। কনসার্টে তারুণ্যের উন্মাদনাও ছিল চোখে পড়ার মতো। আর এই কনসার্ট উপভোগ করেছেন শিশুশিল্পী হিসেবে জনপ্রিয়তা পাওয়া ঢাকাই সিনেমার নায়িকা প্রার্থনা ফারদিন দীঘি।

প্রথমবারের মতো কোনো ওপেন এয়ার কনসার্ট উপভোগ করতে গিয়ে বেশ উন্মাদনায় ছিলেন ‘চাচ্চু’ খ্যাত তারকা। আর তাইতো কনসার্টে প্রিয় শিল্পীদের গানের সঙ্গে চিৎকার করতে করতে গলাও ভেঙে গেছে তার। শুধু তাই নয় আর্মি স্টেডিয়ামে অর্ণবের কণ্ঠে ‘চিলতে রোদ’ গানটি শুনতে শুনতে আবেগে কেঁদেও ফেলেছিলেন এই নায়িকা।

শুক্রবার (১০ জুন) সাংবাদিককে নিজের প্রথম ওপেন এয়ার কনসার্ট দেখার অনুভূতিও শেয়ার করেন দীঘি, ‘আমার জীবনের অন্যতম সেরা একটি দিন ছিল এটি। আমার গলা এখনো ভাঙা। ঠিকমত কথা বলতে পারছি না। আমি গিয়েছিলাম মূলত অর্ণব, তাহসান, জেমস, মমতাজ আন্টি সবার গান শোনার জন্য। মমতাজ আন্টির গান আমি তার খুব কাছ থেকেও শুনেছি। তবে কনসার্টে তার গান শোনার ব্যাপারই আলাদা।’

কোক স্টুডিও বাংলার অনেক বড় ফ্যান জানিয়ে দীঘি বলেন, ‘আমি কোক স্টডিওর অনেক বড় ফ্যান। কোক স্টুডিও বাংলার ৫টা গান যখন শুনছিলাম স্পেশালি অর্ণবের কণ্ঠে ‘চিলতে রোদ’ শোনার সময় আমার চোখ দিয়ে পানি বের হয়ে গেছে। কারণ অর্ণব আমার কাছে অনেক বড় আবেগের নাম। আমি এত এত পছন্দ করি। তার গান শুনতে শুনতে বড় হয়েছি।’

সর্বশেষ এই নায়িকা যোগ করেন, ‘তাহসানের গানেরও অনেক বড় ফ্যান আমি। তা সবাই জানে। তবে কাল আমার একটা শপথ ছিল জেমসের ‘তারায় তারায়’ না শুনে বাসায় ঢুকব না। এ জন্য দেরি করে ফিরলে যদি বাসায় মাইরও খেতে হয় আমি তাও খাবো। শেষ পর্যন্ত সেই গানটিও শুনেছি। সব মিলিয়ে অসাধারণ একটি দিন কেটেছে আমার। দারুণ উপভোগ করেছি বন্ধুদের সঙ্গে।’