কনটেইনারের কেমিক্যাল সমুদ্রে ছড়ানো বন্ধে কাজ করছে সেনাবাহিনী

ছবি: সংগৃহীত
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

সিপ্লাস ডেস্ক: চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে বিএম কনটেইনার ডিপোতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড ঘটেছে। এই অগ্নিকাণ্ডে তিন দফা বিকট বিস্ফোরণও হয়েছে। আশঙ্কা রয়েছে, বিস্ফোরণে ছড়িয়ে পড়া কেমিক্যাল ড্রেন হয়ে সমুদ্রের পানিতে ছড়িয়ে পরতে পারে।

এক্ষেত্রে সমুদ্রে কেমিক্যাল যেন ছড়িয়ে না পরে সেজন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিচ্ছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর একটি বিশেষ ইঞ্জিনিয়ারিং টিম।

রোববার (৫ জুন) এ তথ্য জানিয়েছেন চট্রগ্রাম সেনাবাহিনীর ব্যাটালিয়ন-১-এর লেফটেন্যান্ট কর্নেল মনিরা সুলতানা।

তিনি জানান, ‘কনটেইনার ডিপোতে লাগা আগুনে কেমিক্যাল যাতে ড্রেনের মাধ্যমে সমুদ্রে না ছড়াতে পারে, সেজন্য সেনাবাহিনীর বিশেষ ইঞ্জিনিয়ারিং টিম ড্রেনেজ ব্যবস্থা বন্ধ করতে যাচ্ছে। ড্রেনেজ ব্যবস্থা থাকলে কেমিক্যাল সমুদ্রে ছড়াতে পারে। এতে সমুদ্রের পানি এবং মৎস্য ও জলজ ক্ষতির সম্ভাবনা রয়েছে। এ কারণে আমাদের এ উদ্যোগ।’

এদিকে, বিএম কনটেইনার ডিপোতে ভয়াবহ আগুনে এ পর্যন্ত ২৬ জন নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাপসাতাল সূত্র। আহত হয়েছেন আরও চার শতাধিক। হতাহতদের মধ্যে ডিপোর শ্রমিক, স্থানীয় বাসিন্দা, পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা রয়েছেন।

কেমিক্যালের কনটেইনার থেকে আগুনের সূত্রপাত বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে ফায়ার সার্ভিস।

প্রতিষ্ঠানটিতে আগুন লাগার পরই নিয়ন্ত্রণে ছুটে যায় ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। কিন্তু এরপরই ঘটে ভয়াবহ বিস্ফোরণ। এতে অনেক ফায়ার সার্ভিস কর্মীসহ আহত হন পুলিশ সদস্যরা।

এদিকে, হাসপাতালে একে একে আনা হচ্ছে আহতদের। অ্যাম্বুলেন্স থেকে শুরু করে সিএনজিচালিত অটোরিকশাতে করেও হতাহতদের আনা হচ্ছে। আহতদের চট্টগ্রামের বেসরকারি হাসপাতালগুলোতেও চিকিৎসা দিতে বলা হয়েছে। সেই সঙ্গে চট্টগ্রামের সব চিকিৎসকের ছুটি বাতিল করা হয়েছে।