কক্সবাজারে বাল্য বিয়েতে ইউএনও, বিয়ের পিড়ি থেকে বরের ভো দৌড়

CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

কক্সবাজারের রামুতে বাল্য বিয়ের খবর পেয়ে একটি বাড়িতে অভিযান চালায় রামু উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) প্রনয় চাকমা। এ সময় ইউএনও আসার খবরে নববধূকে বিয়ের পিড়ি রেখে পালিয়ে যায় বর।

১১ অক্টোবর শুক্রবার স্থানীয় কচ্ছপিয়া ইউনিয়নের হাইস্কুল পাড়াতে এ অভিযান পারিচালিত হয়।

বর বর সাকের উল্লাহ ছোট জামছড়ির মনিরুজ্জামানের পুত্র।

ইউএনও প্রনয় চাকমা জানান, ওই এলাকার আবদুর রহিমের মেয়ে, আসমাউল হোসনা (১৪) কে বাল্য বিবাহ দিচ্ছে, এমন সংবাদের প্রেক্ষিতে ওই বাড়িতে অভিযান চালিয়ে, ঘটনার সত্যতা পেয়ে বাল্য বিবাহ বন্ধ করে দেন তিনি।

স্থানীয় সাইদ জানান, পূর্ব নির্ধারিত সময় সুচি অনুযায়ী উল্লেখিত দু,পরিবার বিয়ে সমস্ত আয়োজন শেষ করে, যতারীতি বিয়ের আয়োজন করেন। এতে কনে পক্ষের প্রায় মেহমান খাওয়া দাওয়া শেষ করেন। দু, পরিবার কাছাকাছি হওয়ায় বরসহ তার পক্ষের লোকজনও হাজির হয় কনের বাড়িতে। এমন সময় গর্জনিয়া পুলিশ ফাঁড়ির এক দল সদস্য হাজির হয় ইউএনও রামু। এতেই পুরো বিয়ে বাড়ি ফাকাঁ হয়ে যায়।

ইউএনও প্রনয় চাকমা বলেন, ওই বাল্য বিবাহটি বন্ধ করে দেওয়ার পরে, কনের মা, মিনারা বেগম ও কনের চাচাত ভাইকে বাল্য বিবাহে সহায়তার দায়ে ভ্রাম্যমান আদালত করে ৬ মাসের সাজা দিয়ে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।