কচ্ছপিয়াতে আগুনে পুড়ে এক শিশুর মর্মান্তিক মৃত্যুঃ ক্ষয়ক্ষতি ৬ লাখ টাকার

CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

রামুর কচ্ছপিয়া ইউনিয়নের দৌছড়ি দক্ষিনকুল ঢালার মুখ ২ নং ওয়ার্ড, ফজল আহম্মদের ছেলে মোঃ জাফর আলমের দোকান ঘর ও বাড়িতে আগুন লাগে সব কিছু পুড়ে গেছে।

বৃহস্পতিবার( ১৭ অক্টোবর) রাত ৮টার দিকে আগুনের সুত্রপাত হয়।

এসময়, নানার বাড়িতে বেড়াতে আসা জাফরের নাতি, লেবুছড়ি বিজিবি ক্যাম্পের পাশের এলাকার আনছার উল্লাহর ছেলে আবদুল আওয়াল জিহাদ (৫) আগুনে পুড়ে মর্মান্তিকভাবে মারা গেছে।

এতে আহত হয়েছেন, আরো ৪ জন।

আহতরা হলেন, জাফরের ছেলে, গিয়াস উদ্দিন, জসিম উদ্দি, হেলাল উদ্দিন এবং তাদের মা, দিলারা বেগম।

আহতদের ককসবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে বলে, জানান গর্জনিয়া পুলিশের আইসি এসআই দেব্রত রায়।

২ নং ওয়ার্ডের মেম্বার ও সাবেক প্যানেল চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীন জানান, রান্না ঘরের চুলা থেকে আগুনের সুত্রপাত হয়ে, মুহুর্তের মধ্যে পুরো ঘর আগুনে ছেয়ে যায়।

এলাকাটি দূর্গম ও পাহাড়ি হওয়ায় আগুন নিভাতে তেমন কোন লোকজন বা পানি না পাওয়াতে টানা ১ ঘন্টা আগুন জ্বলে। এতে সব কিছু পুড়ে নিস্ব হয়ে গেছে বলে জানান তিনি।

আগুনে পুড়ে ক্ষয়ক্ষতি পরিমান অনুমান ৬ লাখ টাকার উপরে হবে বলে দাবী করেন জয়নাল মেম্বার।

রামু উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রনয় চাকমা, তৎক্ষানিক নিহত জিহাদ ও আহতদের খোঁজ খবর নিয়ে, লাশ দাফন কাফনের ১০ হাজার টাকা অনুদান দেন।

আর পরবর্তীতে প্রয়োজনীয় সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

পুলিশের আইসি দেবব্রত রায় জানান, নিহত জিহাদকে দাফন করার অনুমতি দেওয়া হয়েছে