এবার টুইটার ব্যবহারে লাগবে টাকা

ছবি: সংগৃহীত
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

সিপ্লাস ডেস্ক: টুইটারের মালিক ধনকুবের মাস্ক লিখেছেন, ‘সাধারণ ব্যবহারকারীদের জন্য টুইটার সব সময়ই ফ্রি সেবা দেবে। তবে সরকারি বা বাণিজ্যিকভাবে ব্যবহার করা হলে এর জন্য সামান্য কিছু ফি দেয়া লাগতে পারে।’

আর ফ্রি সেবা নয়। টাকা দিয়ে ব্যবহার করতে হবে সমাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটার। অবশ্য সবার জন্য টাকা লাগবে তা নয়। শুধু সরকার কিংবা বাণিজ্যিক উদ্দেশ্যে কেউ ব্যবহার করলে তাকে দিতে হবে কিছুটা ফি।টানা তিন সপ্তাহের নাটকীয়তার পর অবশেষে ৪৪ বিলিয়ন ডলারের বিনিময়ে টুইটারের নতুন মালিক হয়েছেন টেসলা সিইও ও স্পেসএক্সের প্রধান প্রকৌশলী ইলন মাস্ক।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, এরই মধ্যে টুইটার নিয়ে মাস্ক বলেছেন তার পরিকল্পনার কথা। বুধবার সকালে এক টুইট বার্তায় টানলেন অর্থের বিনিময়ে সেবার বিষয়টিও।টুইটারের মালিক ধনকুবের মাস্ক লিখেছেন, ‘সাধারণ ব্যবহারকারীদের জন্য টুইটার সব সময়ই ফ্রি সেবা দেবে। তবে সরকারি বা বাণিজ্যিকভাবে ব্যবহার করা হলে এর জন্য সামান্য কিছু ফি দেয়া লাগতে পারে।’

তবে যোগাযোগ করেও এ বিষয়ে টুইটার কর্তৃপক্ষের কোনো বক্তব্য নিতে পারেনি রয়টার্স।টুইটারের মালিকানা হাতে আসার পর থেকেই কিছু পরিবর্তনের পরিকল্পনার কথা বলেছেন ইলন মাস্ক। এতে নতুন নতুন সেবাও যোগ হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।এপ্রিলের শেষ সপ্তাহে টুইটার কিনে নেয়া ইলন মাস্ক এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলেছিলেন, বাকস্বাধীনতা হলো কার্যকরী গণতন্ত্রের ভিত্তি এবং টুইটার বাকস্বাধীনতার ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম, যেখানে মানবসভ্যতার ভবিষ্যৎ নিয়ে বিতর্ক হয়।

টুইটার পরিচালনা বোর্ডের প্রধান ব্রেট টেলর এই ঘটনাকে কোম্পানির শেয়ারহোল্ডারদের জন্য সবচেয়ে ভালোভাবে এগিয়ে যাওয়া হিসেবে অভিহিত করেছেন।

গত ৪ এপ্রিল জানা যায়, টুইটারের প্রায় ৯ দশমিক ২ শতাংশ শেয়ারের মালিক ইলন মাস্ক। যার জন্য তিনি খরচ করেছেন ২ দশমিক ৪ বিলিয়ন ডলার। সে সময় একক মালিক হিসেবে প্রতিষ্ঠানটির সবচেয়ে বেশি শেয়ারের মালিক হলেও ১০ এপ্রিল টুইটার বোর্ডের মিটিংয়ে যোগ দিতে অস্বীকার করেন তিনি। পরে ইলন মাস্ক তার পরিকল্পনা স্পষ্ট করেন যে তিনি আসলে পুরো টুইটারই চান।

এরপর ১৪ এপ্রিল ইলন মাস্ক টুইটারের বাকি শেয়ারগুলোর প্রতিটি ৫৪ দশমিক ২০ ডলারে কিনে নেয়ার প্রস্তাব দেন, যা আগের কেনা ৯ দশমকি ২ শতাংশ শেয়ারের থেকে ৩৮ শতাংশ বেশি। মাস্কের বক্তব্য ছিল, কার্যকর গণতন্ত্রের জন্য বাকস্বাধীনতা একটি সামাজিক বাধ্যবাধকতা। বর্তমান কাঠামোতে টুইটার তা দিতে পারবে না।

পরে তিনি ‘সেরা ও চূড়ান্ত’ প্রস্তাব হিসেবে ৪৪ বিলিয়ন ডলারে কোম্পানিটিকে ব্যক্তিগতভাবে কিনে ফেলার প্রস্তাব দেন। টুইটারের মালিক হওয়ার পরপরই এক টুইটে ইলন মাস্ক বলেন, ‘আমি আশা করি, আমার কট্টর সমালোচকও টুইটারে থাকতে পারবে, কারণ এটিকেই বাকস্বাধীনতা বলে।’