উত্তেজনার মধ্যেই ভারতকে শক্তিশালী ট্যাংক কিলার দিল ইসরায়েল

CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

কাশ্মীর ইস্যুতে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে। আর এই উত্তেজনার মধ্যেই পাকিস্তানের দিক থেকে শত্রুদের ট্যাংক মোকাবিলায় এবার নয়া অস্ত্র হাতে পেল ভারতীয় সেনাবাহিনী।

এই মুহূর্তের প্রয়োজনীয়তা মেটাতে আপাতত সীমিত সংখ্যক ইসরায়েলি স্পাইক অ্যান্টি-ট্যাংক গাইডেড মিসাইল (ATGMs) অধিগ্রহণ করল ভারতীয় সেনাবাহিনী। DRDO-র তৈরি দেশীয় প্রযুক্তির মানবচালিত পোর্টেবল ট্যাংক কিলার তৈরি না-হওয়া পর্যন্ত এই অস্ত্রকেই কাজে লাগানো হবে বলে জানা গেছে।

একটি সূত্র জানিয়েছে, প্রথম ধাপে ২১০ স্পাইক মিসাইল ও এক ডজন লঞ্চার ১০ দিন আগে ভারতে এসেছে। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে চলা চাপা উত্তেজনার মধ্যেই জরুরি ভিত্তিতে এই অস্ত্র ভারতীয় সেনায় অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

২৬ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানের বালাকোটে জইশ শিবিরের উপর ভারতীয় মিরাজ ২০০০ ফাইটার জেট অভিযানের পর প্রায় ২৮০ কোটি টাকা দিয়ে এই বিশেষ ক্ষমতাসম্পন্ন ফায়ার অ্যান্ড ফরগেট স্পাইক ATGMs কেনে ভারত। এগুলো ৪ কিমি দূরের লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে সক্ষম।

ভারতীয় সেনাবাহিনী সূত্র জানিয়েছে, ‘আগামী বছরের মধ্যে DRDO-র তৈরি করা মানব-পোর্টেবল ATGM তৈরি না-হলে ফের ইজরায়েলি এই অস্ত্রের অর্ডার করা হবে। আমরা কোনও অবস্থাতেই পিছিয়ে থাকতে চাই না।’

যদিও ২০২০ সালেই ভারতীয় সেনাবাহিনীকে মানব-পোর্টেবল ATGM উপহার দেওয়ার ব্যাপারে নিশ্চিত ডিআরডিও। গত মাসেই কুর্নুলে এই অস্ত্রের তিনটি সফল ট্রায়াল করেছে তারা।