মোশাররফ হোসেনের পা ধরে সালাম করলেন পরশ

ছবি: সিপ্লাসটিভি.নিউজ
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক:  ১৯ বছর পর রোববার (২৯ মে) হাটহাজারী পার্বতী মডেল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে উত্তর জেলা যুবলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ।

অনুষ্ঠানে সাবেক মন্ত্রী ও আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম মেম্বার ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপি সম্মেলনে সম্মানিত অতিথি ছিলেন।

অনুষ্ঠানের শুরুর দিকে মঞ্চে নির্ধারিত আসন গ্রহণ করতে গেলে মোশাররফ হোসেনকে পা ধরে সালাম করেন যুবলীগের চেয়ারম্যান ও সম্মেলনের প্রধান অতিথি শেখ ফজলে শামস পরশ।

উপস্থিত যূবলীগের হাজার হাজার নেতাকর্মী এই ঘটনায় অবাক হয়ে যান । অনেকেই বলাবলি করতে থাকেন এইটাকেই রাজনৈতিক শিষ্ঠাচার বলে। আবার অনেকেই বলেন, পরশের হাত ধরেই যুবলীগ তার গৌরবময় ঐতিহ্য ফিরে পাবে। এই ঘটনা দেখে যুবলীগের নেতাকর্মীরা তাদের ব্যক্তিগত ও রাজনৈতিক জীবনে বিনয়ী, নম্র হয়ে উঠবে।

যদিও উত্তর জেলা যুবলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে ‘সম্মানিত অতিথি’ তালিকায় নাম রাখাকে কেন্দ্র করে রাজনীতির মাঠে নানা কানাঘুষা চলছিল। অনেকেই ধারণা করেছিলন হয়তো প্রবীন এই নেতা উত্তর জেলা যুবলীগের সম্মেলনে আসবেনই না। কিন্তু মঞ্চের এ ঘটনা সবকিছুতে জল ঢেলে দিল।

অবশ্য বক্তব্য দেয়ার পরপরই অনুষ্ঠান স্থল ত্যাগ করেন ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন। শারিরিক অসুস্থতার জন্য ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপি পুরোটা সময় না থাকলেও উনার বক্তব্যে ঠিকই কর্মীদের চাঙ্গা করে দিয়ে গেলেন।

এরকম ঘটনার স্বাক্ষী হতে পেরে মোশাররফ হোসেনের অনুসারীরাও খুশি।

সকাল সাড়ে ১১টার দিকে সম্মেলনের কার্যক্রম শুরু হয়। জাতীয় সঙ্গীত ও জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্যদিয়ে শুরু হয় উত্তর জেলা যুবলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন।

এসময় কেন্দ্রীয় যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ জাতীয় পতাকা ও সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন খাঁন নিখিল যুবলীগের দলীয় পতাকা উত্তোলন করেন। পরে পায়রা ও বেলনু উড়িয়ে উদ্বোধন করেন সম্মেলন।

উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় যুবলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ বদিউল আলম, যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক  ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নাঈম, সাংগঠনিক সম্পাদক মো.সাইফুর রহমান সোহাগ, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক জয়দেব নন্দী, উপ প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আদিত্য নন্দী ও বিশেষ অতিথি হিসেবে আছেন চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদ প্রশাসক এম এ সালাম, সাধারন সম্পাদক শেখ আতাউর রহমান আতা, দিদারুল আলম এমপি, খাদিজাতুল আনোয়ার সনি এমপি, উত্তর জেলা যুবলীগের সভাপতি মো. মামুন, সাধারণ সম্পাদক রাশেদুল আলম, যুগ্ম সম্পাদক মো. মিজানুর রহমান মিজান প্রমুখ।

সাধারণ সম্পাদক রাশেদুল আলম ও যুগ্ম সম্পাদক মিজানুর রহমানের যৌথ সঞ্চালনায় অনুষ্টিত স্মরণ কালের বৃহত্তম এ সন্মেলনে শোক প্রস্তাব পাঠ করেন মুজিবুর রহমান স্বপন।