উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অবৈধ বিদ্যুৎ সংযোগ বন্ধে অভিযান

ক্যাম্প-৫ এর ক্যাম্প-ইন-চার্জ সিনিয়র সহকারী সচিব ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মো. মোস্তাফিজুর রহমান শাওন
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

উখিয়া প্রতিনিধি: বর্তমানে দেশে বিদ্যুৎ ও জ্বালানির চরম সংকট চলছে। এ পরিস্থিতিতে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে নানা কৌশলে চুরি করে সরকারি বিদ্যুৎ ব্যবহার করছেন রোহিঙ্গারা। ক্যাম্পে এসব অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন ও বন্ধ করতে অভিযান চালানো হয়েছে।

রোববার (১৪ আগস্ট) সকাল ১০টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত গুড়িগুড়ি বৃষ্টির মধ্যে উখিয়ার ক্যাম্প-৫ এর বিভিন্ন ব্লকে অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্নে অভিযান চালিয়েছেন ক্যাম্প-৫ এর ক্যাম্প-ইন-চার্জ সিনিয়র সহকারী সচিব ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মো. মোস্তাফিজুর রহমান শাওন।

অভিযানে এপিবিএনের সদস্যসহ ও সংশ্লিষ্টরা সাথে ছিলেন।

জানা যায়, রোহিঙ্গা ক্যাম্পগুলোতে রাস্তা ঘাটে সোলার স্ট্রিট লাইট থাকার কথা বলা হয়েছে। এর পাশাপাশি আছে মিনি গ্রিড, ন্যানো গ্রিডের মাধ্যমে দেওয়া বিদ্যুৎ সংযোগ। ক্যাম্পের রোহিঙ্গারা এই সকল বিদ্যুৎ এর উৎস থেকে অবৈধভাবে নিজেরাই সংযোগ তৈরি করে নিচ্ছে নিজেদের শেল্টার ও বিভিন্ন স্থানে স্থাপিত ছোট-বড় দোকানে। এসব দোকান গুলো অবৈধভাবে নেওয়া বিদ্যুৎ লাইন দিয়ে জমজমাট ভাবে আড্ডা চলে রাত ১২ টা ১ টা পর্যন্ত। ক্যাম্প এলাকায় ঘুরে মোচড়া বাজার, বালুখালি ক্যাম্প ১১ ও ১২ সড়কের বাজার, মড়া গাছতলা বাজার, লম্বাশিয়া বাজারসহ ক্যাম্পের অভ্যন্তরে অবস্থিত সকল বাজার ও জনসমাগমের স্থানের চিত্র প্রায় একই রকম পাওয়া গেছে।

অভিযানের বিষয়টি নিশ্চিত করে সিনিয়র সহকারী সচিব ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মো. মোস্তাফিজুর রহমান শাওন বলেন, এটা কোনো বিশেষ অভিযান নয়, ক্যাম্পের নিয়মিত কার্যক্রমের অংশ। এধরনের অভিযান আরও আগে কেনো করা হলো না জানতে চাইলে, তিনি চাকরি বিধির কথা উল্লেখ করে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া এর বেশি কিছু জানাতে অপরাগতা প্রকাশ করেন।

ক্যাম্প অভ্যন্তরে এসকল বিষয় নিয়ন্ত্রণে তিনি সবার সহযোগিতা চেয়ে ও ক্যাম্পের সচেতনতা বৃদ্ধি মূলক কাজের সাথে যুক্ত এনজিওদের আরও বেশি সচেতনভাবে করতে অনুরোধ জানান।

উল্লেখ্য, তিনি এর পূর্বেও  লম্বাশিয়া ও ক্যাম্প ১২ এর অবৈধ দোকান এবং মাদক উদ্ধারে এপিবিএন সদস্যদের সাথে নিয়ে একাধিকবার বড় বড় অভিযান পরিচালনা করেন।