ঈদগাঁও উপজেলায় নতুন ভোটারদের তথ্য সংগ্রহ শুরু

চলবে আগামী ২২ আগষ্ট পর্যন্ত
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

সেলিম উদ্দীন,ঈদগাঁও: কক্সবাজারের ঈদগাঁও উপজেলায় গত ১ আগস্ট থেকে নতুন ভোটারদের তথ্য সংগ্রহ কার্যক্রম শুরু হয়েছে। চলবে আগামী ২২ আগষ্ট পর্যন্ত।

সদর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা শিমুল শর্মা জানান, ভোটারদের সংগৃহীত তথ্যসমূহ ২৬ আগষ্ট  থেকে উপজেলা বিশেষ কমিটির মাধ্যমে যাচাই-বাছাই কার্যক্রম শুরু হবে। আনুমানিক বিশ (২০) দিন পর্যন্ত চলবে যাচাই কার্যক্রম।

আগামী ৬ সেপ্টেম্বর থেকে পৌরসভা ও উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে ভোটারদের নিবন্ধন তথা ছবি তোলার কার্যক্রম শুরু হবে। প্রতিটি ইউনিয়নে ছবি তোলার কার্যক্রম আনুমানিক তিন দিনে শেষ হতে পারে।

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা শিমুল শর্মা আরো জানান, ভোটারদের তথ্য সংগ্রহকালে নির্ধারিত তথ্য সংগ্রাহকরা ভোটার প্রত্যাশীদের কাছ থেকে ২৬ প্রকার ডকুমেন্টস সংগ্রহ করবেন।

নির্বাচন কমিশন বাংলাদেশ কর্তৃক চাহিত ২৬ ক্যাটাগরির এসব বৈধ কাগজপত্র যারা দিতে পারবেন এবং যাদের জন্ম ১/১/২০০৭ সালের পূর্বে, যারা প্রকৃতপক্ষে বাংলাদেশে জন্মগ্রহণ করেছেন, যাচাই-বাছাই কমিটি যাদেরকে যোগ্য এবং বৈধ বলে ঘোষণা করবেন কেবল তারাই নতুন ভোটার হিসেবে নিবন্ধন বা ছবি তোলার সুযোগ পাবেন।

নির্বাচন কর্মকর্তা শিমুল শর্মা আরো জানান, ভোটারদের সংগৃহীত তথ্যাবলীর ভিত্তিতে যাচাই-বাছাই বা নিবন্ধন (ছবি তোলার) কার্যক্রমের তারিখ বা সময়সীমা নির্ধারণ করা হতে পারে।

এ নির্বাচন কর্মকর্তা আরো জানান, প্রয়োজনীয় কাগজপত্র জমা দেয়া সাপেক্ষে বিশেষ বাছাই কমিটি কর্তৃক যারা যোগ্য এবং বৈধ বলে বিবেচিত হবেন তারাই নির্ধারিত সময় এবং স্থানে ছবি তোলার সুযোগ পাবেন।

নির্বাচন কমিশন কর্তৃক নির্ধারিত নিবন্ধন কেন্দ্রে (ইউনিয়ন পরিষদ, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, এবং অন্যান্য স্থানে) নির্দিষ্ট সময়ে গিয়ে তথ্যদাতা ভোটাররা ছবি তুলতে পারবেন। ছবি তুলতে যাওয়ার সময় কোন ডকুমেন্টস নিতে হবে না।

যারা ইতোমধ্যে বা পরবর্তীতে অনলাইনে ভোটার হওয়ার আবেদন করেছেন বা করবেন তাদেরকে মেসেজের মাধ্যমে নিবন্ধনের স্থান ও সময়সীমা জানিয়ে দেয়া হবে। বাকিরা এমনিতেই ছবি তোলার সুযোগ পাবেন।

তথ্য সংগ্রহ কার্যক্রম চলাকালে তথ্য সংগ্রহকারীরা মৃত ভোটারদের তথ্য ও সংগ্রহ করবেন।

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা শিমুল শর্মা জানান, বর্তমানে ঈদগাঁও উপজেলা, সদর উপজেলা ও কক্সবাজার পৌরসভায় অনলাইনে জাতীয় পরিচয়পত্রের সংশোধন কার্যক্রম, ভোটার বদলি সহ নির্বাচন কমিশন বাংলাদেশ ঘোষিত ও নির্দেশিত সকল পরিসেবা চালু রয়েছে।