ঈদগাঁওতে বৃষ্টি প্রার্থনায় ‘ইস্তিস্কার’ নামাজ আদায়

ঈদগাঁওতে বৃষ্টি প্রার্থনায় নামাজ আদায়
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

সেলিম উদ্দীন, ঈদগাঁও (কক্সবাজার) প্রতিনিধি: কক্সবাজারের ঈদগাঁওতে প্রচণ্ড তাপদাহ, খরা ও অনাবৃষ্টির কারণে জনজীবন অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে। এ থেকে রক্ষা পেতে উপজেলায় ‘ইস্তিস্কার নামাজ’ (বৃষ্টি প্রার্থনা) আদায় করেছেন মুসল্লিরা।

মঙ্গলবার (২ আগষ্ট) সকালে ঈদগাহ আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে এলাকার মুসল্লিরা এ নামাজ আদায় করেন।

ইস্তিস্কার নামাজ সুন্নতে মুয়াক্কাদা; কেননা নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ইস্তিস্কার নামাজ আদায় করেছেন। আবদুল্লাহ ইবনে যায়েদ থেকে বর্ণিত এক হাদীসে এসেছে, “রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম নামাজের মাঠের দিকে বের হয়ে গেলেন, অতঃপর আল্লাহর কাছে পানি তলব করলেন। তিনি কিবলামুখী হলেন। তাঁর চাদর উল্টিয়ে পরলেন এবং দু রাকাত নামাজ আদায় করলেন।” (বুখারী ও মুসলিম)

নামাজ শেষে অনাবৃষ্টি থেকে মুক্তির জন্য মহান আল্লাহর রহমত কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়। মোনাজাত পরিচালনা করেন ইমাম জাফর আলম।

নামাজে অংশগ্রহণকারীরা জানান, শ্রাবনের অর্ধেক মাস পার হলেও বৃষ্টির দেখা নেই। অনাবৃষ্টিতে সম্ভব হচ্ছে না ফসল উৎপাদন। প্রচণ্ড গরমে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে এখানকার জনজীবন। এমন দুর্ভোগ থেকে মুক্তি পেতে মহান আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভের জন্য এ নামাজ আদায় করা হয়।

অন্যদিকে লোডশেডিং ও তীব্র তাপদাহ যেনো মরার উপর খাঁড়ার ঘা হয়ে দাড়িয়েছে। বৃষ্টি হলে স্বস্তি মিলবে এমনটাই আশা সাধারণ মানুষের।

নামাজের পূর্বে সংক্ষিপ্ত বয়ান করেন হয়রত মাওলানা ইমাম জাফর আলম ও আজিজিয়া নুরুল উলুম মাদ্রাসার শিক্ষক মুবিনুল হক জমিরী।

ইমাম জাফর আলম বলেন, আমাদের প্রিয় নবী রাসুল (সা.) তার সময় বৃষ্টির জন্য সালাত আদায় করতেন। আমরা তারই উম্মত- আল্লাহর কাছে ক্ষমা চেয়ে বৃষ্টি প্রার্থনা করলাম।