ইসির নির্দেশনার পরও নিজ এলাকায় সংসদ সদস্য বাহার

ছবি: সংগৃহীত
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

সিপ্লাস ডেস্ক: নির্বাচনে আচরণবিধি লঙ্ঘন করে এলাকায় না থাকার নির্দেশনা প্রদান করে কুমিল্লা সদর আসনের সংসদ সদস্য আ ক ম বাহাউদ্দীন বাহারকে চিঠি দিয়েছিল নির্বাচন কমিশন (ইসি)। বুধবার (৮ জুন) ওই চিঠি দেওয়া হয় ইসির পক্ষ থেকে। তবে ইসির সে নির্দেশনা অমান্য করে সংসদ সদস্য বাহাউদ্দীন বাহার এখনো এলাকায় রয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

বৃহস্পতিবার (৯ জুন) কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার কাবিলা হোটেল নূর মহলে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন।

এ সময় মাহাবুব উল আলম হানিফের সঙ্গে দেখা যায় কুমিল্লা সদর আসনের সংসদ সদস্য আ ক ম বাহাউদ্দীন বাহারকে। পরে বিকেল ৪টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত নগরীর রামঘাটে অবস্থিত মহানগর আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে অবস্থান করেন তিনি ।

নির্বাচন কমিশনের (ইসি) চিঠির পরও কেন সংসদ সদস্য বাহার এলাকা ছাড়ছেন না জানতে চাইলে কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আতিক উল্যাহ খোকন গণমাধ্যমকে বলেন, সংসদ সদস্য বাহার শুধু সিটি করপোরেশনের এমপি নন, তিনি সিটির বাইরেও সদর উপজেলার ছয়টি ইউনিয়নের এমপি।

 

সেসব ইউনিয়নে মেম্বার-চেয়ারম্যানরা আছেন, কোতয়ালি থানা আওয়ামী লীগের কমিটি আছে। উনি যদি পার্টি অফিসে কিছুটা সময় না দেন তাহলে উনার নির্বাচনী এলাকা থেকে যারা সহায়তার জন্য আসেন, তাদেরকে কীভাবে সহায়তা করবে।

ইসির নির্দেশনার ওপর হাইকোর্টে রিট করা হয়েছে জানিয়ে খোকন আরও বলেন, আমাদের আইনজীবী জানিয়েছেন, নির্বাচনী এলাকায় থাকায় কোনো বাধা নেই। হাইকোর্টের ওই নথি আগামী শনিবার আমাদের হাতে এসে পৌঁছাবে।

এ বিষয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তা শাহেদুন্নবী চৌধুরী গণমাধ্যমকে বলেন, যেহেতু বিষয়টি হাইকোর্টের সেহেতু এই বিষয়টি নিয়ে আমার কোনো বক্তব্য নেই। তবে, মহামান্য হাইকোর্ট থেকে এমন কোনো কাগজপত্র আমরা পাইনি।

স্বতন্ত্র মেয়রপ্রার্থী মনিরুল হক সাক্কুর মুখপাত্র কবির হোসেন মজুমদার বলেন, এমপি মহোদয় নির্বাচনী এলাকায় অবস্থান করে আচরণবিধি লঙ্ঘন করছেন।

আমরা রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে অভিযোগপত্র জমা দিয়েছি। নির্বাচন কমিশন এমপি মহোদয়কে এলাকায় না থাকার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন, কিন্তু এখনো তিনি এলাকায় অবস্থান করছেন। আমরা নির্বাচন কমিশনকে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য আপনাদের মাধ্যমে অনুরোধ জানাচ্ছি।

প্রসঙ্গত, আগামী ১৫ জুন অনুষ্ঠানে কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আচরণবিধি লঙ্ঘনের কথা উল্লেখ করে সংসদ সদস্য বাহারের বিরুদ্ধে গত সোমবার (৬ জুন) ইসির কাছে লিখিত অভিযোগ দেন স্বতন্ত্র মেয়রপ্রার্থী মনিরুল হক সাক্কু। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে সংসদ সদস্য বাহারকে সতর্ক করে ইসি।

পরদিন মঙ্গলবার (৭ জুন) হাইকোর্টে রিট করেন তিনি। বুধবার (৮ জুন) নির্বাচনী এলাকায় থাকার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে আবারও চিঠি দেয় ইসি।