আ’লীগ আগের মতোই সন্ত্রাসী হামলা করে: মির্জা ফখরুল

ছবি: সংগৃহীত
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

সিপ্লাস ডেস্ক: বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‌’সরকার এখন থেকেই সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে জড়িত হয়েছে। আওয়ামী লীগ বদলায়নি। তারা আগের মতোই সন্ত্রাসী হামলা করে। তারা একদলীয় শাসন প্রতিষ্ঠা করার জন্যই এ সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড পরিচালনা করছে। তারা একটি ফ্যাসীবাদী রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করতে চায়।’

রোববার গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মলনে তিনি এসব কথা বলেন।মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, ‘শনিবার বিএনপির স্থায়ী কমিটির সিনিয়র সদস্য ড.খন্দকার মোশাররফ হোসেনের ঈদ পরবর্তী শুভেচ্ছা বিনিময় করতে তার নিজ বাড়ি দাউদকান্দি যান। তিনি সেখানে তার কর্মীদের সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। তিনি যখন তার নিজ বাসভবন থেকে অন্য আরেকটি উপজেলা যাচ্ছিলেন তখন আওয়ামী সন্ত্রাসীরা লাঠিসোটা ও ইটপাটকেল নিয়ে অর্তকিত হামলা করে। তারা বৃষ্টির মতো ইটপাটকেল নিক্ষেপ করতে থাকে এবং পুলিশ এসে নিয়ন্ত্রণ করে।’

তিনি বলেন, ‌’ড. মোশাররফের ওপর হামলা মানে বিএনপির স্থায়ী কমিটি ওপর হামলা এবং বিএনপির ওপর হামলা। এর আগে তারা বরিশালে গৌরনদীতে বিএনপির সাবেক সংসদ সদস্য জহির উদ্দিন স্বপন ও নরসিংদীতে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আব্দুল মঈন খানের ইফতার মাহফিলে আক্রমণ করে। নারায়ণগঞ্জ জেলার সদস্য সচিব মামুনকে পল্টনের সামনে তাকে আহত করে আওয়ামী সন্ত্রাসী।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘তারা আইন করে গণমাধ্যমের বাকরুদ্ধ করে দিয়েছে। আজ স্বাধীনভাবে কথা বলার অধিকার নেই। অবিলম্বে ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেনের ওপর হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং তাদের আইনের আওতায় আনার দাবি জানাচ্ছি।’

তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ একটি মুনাফিক দল। তারা মুখে যা বলে বাস্তবে তা করে না। তারা একটি প্রতারক দল। তারা প্রথম থেকেই জনগণের সঙ্গে প্রতারণা করেছে।’মির্জা ফখরুল বলেন, ‘জনগণের ভোটের অধিকার কেড়ে নিয়েছে। তত্ত্বাবধায়ক সরকার না হলে আমরা নির্বাচনে যাবো না। এ সরকার একটি দুর্নীতিবাজ সরকার। তাদের দুর্নীতির কারণে আজকে সয়াবিন তেলের দাম বৃদ্ধি করা হয়েছে।’