আজ আইয়ুব বাচ্চুর বিদায়ের দিন..

CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

তার নিজেরও প্রিয় বাদ্য ছিল গিটার। রুপালি গিটার মানেই যেন তাই আইয়ুব বাচ্চুর স্মৃতি। তার প্রয়াণের এক বছরের মাঝে তাকে স্মরণ করার পাশাপাশি ভক্তদের স্মরণে বার বার ঠাঁইও পেয়েছে রুপালি গিটার।

আইয়ুব বাচ্চু মানেই শুধু, গান বা ব্যান্ড সঙ্গীত নয়। আইয়ুব বাচ্চু মানে একটি গল্প। যে গল্পের প্রতিটি উপাদান, চরিত্র মানুষের মনে দাগ কেটেছে বহু বছর ধরে।

একারণেই ২০১৮ সালের ১৮ অক্টোবরের সকালটা ছিল বাংলাদেশের সঙ্গীত জগতের জন্য যেন অবিশ্বাস্য। সেদিন পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করে চলে যান বাংলাদেশের ব্যান্ড ইতিহাসের অন্যতম নায়ক, দেশের অন্যতম সেরা গিটার বাদক, ‘ট্রেন্ড সেটার’ আইয়ুব বাচ্চু। তার মৃত্যুর পর শোকে ছায়া নেমে আসে দেশজুড়ে। আর ভক্তদের কণ্ঠে উচ্চারিত হতে থাকে তার বিভিন্ন গান।

আর একটি বেশ চমকপ্রদ ঘটনা ঘটনা ঘটে সেদিন। যেদিন তার মরদেহ নেওয়া হয় শহীদ মিনারে। সেদিন তাকে শ্রদ্ধাঞ্জলী জানাতের আসা মানুষের হাতে ঠাঁই পায় রুপালি গিটারের আদলে তৈরি করা ফুলের প্রতিকৃতি। সেই ভক্তের হাতের ফুলের গিটার নজর কাড়ে সবার।

এরপরে আইয়ুব বাচ্চুর জন্মস্থান চট্টগ্রামে তার মরদেহ নেওয়া হয়। সেখানে দাফনের পর তার সমাধির ওপর দেখা যায় আরেকটি ফুলের গিটার। রেখে গেছেন তারই কোনো ভক্ত।

শেখ মনজু, আইয়ুব বাচ্চুর সার্বক্ষণিক সহযোগী ছবিটি তুলে ধরেন সামাজিক মাধ্যমে। প্রয়াণের ক্ষণটিকেও স্মরণে রাখার এই প্রচেষ্টা আরেকবার কাঁদায় ভক্তদের।

প্রিয় শিল্পীর মাত্র ৫৬ বছর বয়সের প্রয়াণকে খুব সহজে মেনে নিতে পারেনি ব্যান্ড প্রেমিক এবং তার ভক্তরা। কথায়, গানে, সামাজিক মাধ্যমে বারবার উঠে এসেছে  ‘সেই তুমি’ বা ‘একদিন ঘুম ভাঙা শহরে’। আর চট্টগ্রাম শহরের সড়ক দ্বীপে ঠিকই আইয়ুব বাচ্চুর স্মরণে স্থান করে নিয়েছে রুপালি গিটার আরেকবার।

জনপ্রিয় ব্যান্ডশিল্পী আইয়ুব বাচ্চুর স্মৃতি ধরে রাখতে চট্টগ্রাম মহানগরীর প্রবর্তক মোড়ে গড়ে তোলা হয়েছে এই ‘রুপালি গিটার’। শিল্পীর শহরে তার প্রথম মৃত্যুবার্ষিকীর এক মাস আগে ভাস্কর্যটির উদ্বোধন করা হয়। আনুষ্ঠানিকভাবে এ ভাস্কর্যের উদ্বোধন করেন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন।

এরপরে রাজশাহীর ভক্তরাও আইয়ুব বাচ্চুকে স্মরণ করে তৈরি করেন অনন্য এক পূজা মণ্ডপ। এবার শুধু গিটার নয়, স্মৃতির চারণায় উঠে আসে টুপিও। শহরের রানীবাজার মোড়ে এ মণ্ডপ তৈরি হয় টাইগার সংঘের আয়োজনে।

টাইগার সংঘের সাধারণ সম্পাদক পার্থ পাল চৌধুরী  বলেন, “রুপালি গিটারের আদলে সাজানো এ মঞ্চে রয়েছে ৫৮ ফুট লম্বা ও ১৯ ফুট চওড়া রুপালি গিটার। আরও রয়েছে ১০ ফুট উঁচু ও ২৬ ফুট চওড়া হ্যাট। হ্যাটের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে বানানো হয়েছে সানগ্লাস।”

আইয়ুব বাচ্চু শুধু প্রয়াণেই হারিয়ে যাওয়ার নয় তার প্রমাণ তার গিটারের তারে তারে স্মরণে রাখার প্রচেষ্টা। তাই এখনও আইয়ুব বাচ্চু মানে শুধু এলআরবি নয়, শুধু ব্যান্ড সঙ্গীত নয়। আইয়ুব বাচ্চু মানে রুপালি গিটার, যা বার বার ফিরে আসে তাকে ধারণ করে।