আজও পঞ্চগড়ে ঘন কুয়াশা, ৩ দিন ধরে দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা তেঁতুলিয়ায়

ছবি: সংগৃহীত
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

সিপ্লাস ডেস্ক: হিমালয়ের কাছাকাছি অবস্থানের কারণে প্রতিবছর পঞ্চগড়ে শীতের আগমন ঘটে কিছুটা আগেভাগে। আবার শীত বিদায়ও নেয় দেরিতে। এবারও শরতের শেষের দিকে উত্তরের এই জনপদে ঘন কুয়াশা জানান দিচ্ছে শীতের আগমনী বার্তা। গত দুই দিন ধরে ঘন কুয়াশার চাদরে ঢাকা পড়ছে পুরো পঞ্চগড় জেলা। এ ছাড়া টানা তিন দিন ধরে দেশের মধ্যে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায়।

তেঁতুলিয়া আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগার সূত্রে জানা যায়, আজ সকাল নয়টায় তেঁতুলিয়ায় তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ২১ দশমিক ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা সারা দেশের মধ্যে সর্বনিম্ন। এর আগে গতকাল শুক্রবার সকাল নয়টায় তেঁতুলিয়ায় দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২১ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছিল। ওইদিন সন্ধ্যা ছয়টায় তেঁতুলিয়ায় দিনের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৩১ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এর আগে গত বৃহস্পতিবার সকাল ৯টায় তেঁতুলিয়ায় সারা দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছিল ২২ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ওই দিন সন্ধ্যা ছয়টায় তেঁতুলিয়ায় দিনের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছিল ২৭ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

আজ শনিবার সকালে শহরের আশপাশের বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায়, রাতভর কুয়াশা থাকায় পিচঢালা পথগুলো ভিজে গেছে। গাছের পাতা, সবুজ ধানের খেত আর ঘাসের ওপর থেকে চকচক করছে শিশিরবিন্দু। ঘন কুয়াশার কারণে সকালেও সড়কে হেডলাইট জ্বালিয়ে যানবাহন চলতে দেখা গেছে।

সকাল সকাল কাজের উদ্দেশ্যে বের হওয়া চা–কারাখানার শ্রমিক তরিকুল ইসলাম (৩৫) বলেন, ভোরবেলা সামান্য ঠান্ডা লাগলেও সবাই স্বাভাবিক কাপড়চোপড় পরেই বের হচ্ছেন। তবে ঘন কুয়াশা থাকায় অল্প দূরত্বের কিছুই দেখা যাচ্ছে না। কুয়াশা দেখে মনে হচ্ছে শীত এসে গেছে।

পঞ্চগড়ের সিভিল সার্জন রফিকুল হাসান মুঠোফোনে গণমাধ্যমকে বলেন, বর্তমানে দিনে গরম এবং রাতে হালকা ঠান্ডা থাকায় মানুষের মধ্যে শীতজনিত সর্দি-কাশিসহ বিভিন্ন রোগের দেখা দিতে পারে। এ ক্ষেত্রে সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে। বিশেষ করে শিশু ও বৃদ্ধদের ক্ষেত্রে বাড়তি সতর্কতার সঙ্গে যত্ন নিতে হবে। এ ছাড়া ঘন কুয়াশায় সড়কে যানবাহন চলাচলের ক্ষেত্রে দুর্ঘটনা এড়াতে চালকদের সতর্ক থাকতে হবে। করোনার পাশাপাশি কুয়াশা থেকে রক্ষা পেতে অবশ্যই মাস্ক পরতে হবে।

তেঁতুলিয়া আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগারের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. রাসেল শাহ মুঠোফোনে গণমাধ্যমকে বলেন, টানা তিন দিন ধরে তেঁতুলিয়ায় দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হচ্ছে। তবে এখন বৃষ্টির সম্ভাবনা কমে যাওয়ায় প্রায় প্রতিদিনই কুয়াশা থাকতে পারে। এ ছাড়া দিনের বেলা রোদ উঠায় সর্বনিম্ন ও সর্বোচ্চ তাপমাত্রার ব্যবধান বাড়বে। বর্তমানে তেঁতুলিয়ার আকাশের আট ভাগের মধ্যে তিনভাগে মেঘ বিরাজ করছে। এখন থেকে তেঁতুলিয়ায় দিনের সর্বনিম্ন তাপমাত্রাও কমতে থাকবে বলে জানান তিনি।