আওয়ামী লীগের সরকার মানুষকে স্বপ্ন দেখিয়ে স্বপ্ন বাস্তবায়ন করার যোগ্যতা রাখে: পরশ

ছবি: সংগৃহীত
CPLUSTV
CTG NEWS
CPLUSTV
শেয়ার করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক: বর্তমান জটিল রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটে বিএনপির কোনো নেতার রাষ্ট্র পরিচালনা করার যোগ্যতা নেই বলে মন্তব্য করেছেন কেন্দ্রীয় যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস্ পরশ।

মঙ্গলবার (২৯ নভেম্বর) দুপুরে নগরের কাজীর দেউড়ি এলাকায় ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সেন্টারে আগামী ৪ ও ৭ ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জনসভা উপলক্ষে প্রস্তুতি সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

শেখ ফজলে শামস্ পরশ বলেন, আওয়ামী লীগের সরকার মানুষকে স্বপ্ন দেখিয়ে স্বপ্ন বাস্তবায়ন করার যোগ্যতা রাখে। এই যোগ্যতা শুধু বঙ্গবন্ধুর কন্যারই আছে। বর্তমান জটিল রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটে বিএনপির কোনো নেতার রাষ্ট্র পরিচালনা করার যোগ্যতা নাই, দক্ষতা ও সক্ষমতা নাই। না আছে খালেদা জিয়ার, না আছে তাঁর গুণধর পুত্ৰ তারেক জিয়ার। এই যোগ্যতা অর্জন করতে হলে দুর্নীতি পরিহার করতে হবে। এই যোগ্যতা অর্জন করতে হলে রাষ্ট্র পরিচালনার দক্ষতা থাকতে হয়। দক্ষতা নাই বলে নেতিবাচক রাজনীতির দিকে বিএনপি ধাবমান। কোনো বিদেশি প্রভুদের হস্তক্ষেপে বা নির্দেশনায় বাংলাদেশে নির্বাচনও হবে না, সরকারও পরিবর্তন হবে না।

তিনি আরও বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আজ অতুলনীয় জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন। এমন কোনো ক্ষেত্র নাই, এমন কোনো গোত্রের মানুষ নাই যেখানে তাঁর সেবার সুফল পৌঁছায়নি। আজকে পদ্মা সেতুর পর চট্টগ্রামবাসীর স্বপ্নের বঙ্গবন্ধু টানেল দৃশ্যমান এবং চালু হওয়ার জন্য অপেক্ষমান। এই ট্যানল দেশের অর্থনীতিতে বড় প্রভাব ফেলবে। দেশের জিডিপিতে প্রবৃদ্ধি বাড়াতে সাহায্য করবে। টানেল নির্মাণ শেষ হলে চট্টগ্রাম শাহর চীনের সাংহাই শহরের আদলে ‘ওয়ান সিটি টু টাউন’ এর মডেলে গড়ে তোলা হবে।

বিএনপি আমাদের প্রজন্মকে বিকৃত ইতিহাস সেখানোর চেষ্টা করেছেন উল্লেখ যুবলীগ চেয়ারম্যান বলেন, সঠিক ইতিহাস থেকে একটি প্রজন্মকে বঞ্চিত করেছেন আপনারা। কোনো দেশপ্রেমী রাজনৈতিক দলের পক্ষে এমন লজ্জাজনক কাজ করা অসম্ভব। আপনাদের এ ব্যাপারে আগে জবাবদিহি করতে হবে। কেন আপনারা একটি প্রজন্মকে মিথ্যা ইতিহাসের শিক্ষা দিলেন? আপনাদের এই সকল অপকর্মের জবাব যুবসমাজ চায়। যুবলীগের নেতাকর্মীদের প্রতি অনুরোধ, আপনারা রাজপথে থাকবেন। রাজপথে থেকে জনগণকে সঙ্গে নিয়ে এই সন্ত্রাসী এবং ভণ্ড রাজনীতিবিদকে সায়েস্তা করবেন। ইনশাল্লাহ এদের সন্ত্রাস এবং নৈরাজ্যের দাঁতভাঙ্গা জবাব দেব।

যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক মো.মাইনুল হোসেন খান নিখিলের সঞ্চলনায় সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন, আওয়ামী যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মঞ্জুর শাহিন, মুজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সন এমপি, সাহদাত তসলিম, যুগ্ম-সাধারণ বদিউল আলম বদি ও চট্টগ্রাম বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যারিষ্টার শেখ ফজলে নাইম, সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফুর রহমান সোহাগ, সহিদুল হক রাসেল, কেন্দ্রীয় যুবলীগের উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আদিত্য নন্দী, কেন্দ্রীয় যুবলীগের উপ দফতর সম্পাদক দেলোয়ার শাহজাদা ও কেন্দ্রীয় যুবলীগের সদস্য নিয়াজ মোর্শেদ এলিট প্রমুখ।